২১, এপ্রিল, ২০১৮, শনিবার | | ৫ শা'বান ১৪৩৯

নিজের মেয়েকে বিয়ে! অতঃপর…

আপডেট: ১৭ মার্চ ২০১৮, ১০:০৮ এএম

নিজের মেয়েকে বিয়ে! অতঃপর…
পৃথিবীটা সত্যিই একটি আজব রঙ্গমঞ্চ।  এখানে কি না হয়! মাঝে মাঝে সত্যিই কিছু অদ্ভূত রকমের ঘটনা স্বাভাবিক মানুষদের ভাবিয়ে তোলে।  যে এমন ঘটনা ঘটতে পারে তা অনেক মানুষের মাথায় আসবে না। খুব সম্প্রতি তেমনই একটি ঘটনা ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমার এক নারীর ক্ষেত্রে।  জানা গেছে, ওই নারী ভুল তথ্য দিয়ে নিজের মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন। 

আর এই ব্যাপারটি ধরা পড়ে যাওয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে তা অপরাধ হিসাবেই গণ্য করা হয়েছে।  এরপর মা-মেয়ের এই সমকামী
বিয়ে বাতিল করা হয়।  এর পাশাপাশি শাস্তি হিসেবে ওই ৪৫ বছর বয়সী মা প্যাট্রিসিয়া অ্যান স্প্যানের দুই বছরের জেল হয়েছে। 


‘ডিপার্টমেন্ট অব হিউমেন সার্ভিস’ সংস্থা প্রথম মা-মেয়ের এই বিয়ের বিষয়টি ধরে ফেলেন।  এরপরে তা আদালতে গিয়ে গড়ায়।  ‘ডিপার্টমেন্ট অব হিউমেন সার্ভিস’ সংস্থা শিশুদের পরিচর্যা নিয়ে কাজ করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যের আইনে একেবারে নিকট আত্মীয়-স্বজনদের এ ধরনের যৌনাচার নিষিদ্ধ বলে জানা যায়। 

যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যে সমকামী বিয়ে বৈধতা পাওয়ার পর ২০১৬ সালে ওই ৪৫ বছর বয়সী মা প্যাট্রিসিয়া অ্যান স্প্যান তার ২৬ বছর বয়সী মেয়ে মিস্টি ভেলভেট ডন স্প্যানকে বিয়ে করেছিলেন।  প্যাট্রিসিয়ার গর্ভেই মিস্টির জন্ম।  তবে মিস্টি ছোট থাকতেই তার মা থেকে বিচ্ছিন্ন ছিলেন বলে জানা গেছে। 


উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে মা-মেয়ের পুনর্মিলন হয়।  তার দুই বছরের মাথায় বিয়ে করেন মা প্যাট্রিসিয়া- মেয়ে মিস্টি। আদালতের রায়ে বলা হয়েছে কন্যাকেও ১০ বছর পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ ও কাউন্সেলিংয়ের মধ্যে থাকতে হবে।  এছাড়া প্যাট্রিসিয়া অ্যান স্প্যানকেও জেল থেকে মুক্তির পর ৮ বছর পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে।