২৩, ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, শুক্রবার | | ৭ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

আবারও চালু হলো সেই হোটেল

আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৯:৫৩ এএম

আবারও চালু হলো সেই হোটেল
কয়েক মাস আগে সৌদিতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে ভয়াবহ অভিযান পরিচালনা করা হয়, তারই সাক্ষী হোটেল রিটজ কার্লটন।  তখন সারা বিশ্বে আলোচিত ছিল এই হোটেলটি।  কারণ সেখানে ছিল প্রভাবশালী ব্যাক্তি সৌদি প্রিন্স, রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ীসহ ২শ’ জনেরও বেশি লোক।  যা সবার কাছে পরিচিত হয়ে উঠে ‘বিলাসবহুল কারাগার’ নামে।  সেই ‘রিটজ কার্লটন’ হোটেলটি রাষ্ট্রীয় অতিথিদের জন্য আবারও চালু করা হয়েছে। 

সৌদি আরবের প্রধান আইনজীবীর বরাতে জানিয়েছে, ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে প্রায়
১শ’ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সৌদি সরকারকে দিয়ে দুর্নীতি মামলার মীমাংসা করেন সৌদি আরবের গ্রেপ্তার হওয়া প্রিন্স ও মন্ত্রীরা। 


এতদিন ধরে রাজধানী রিয়াদের এই হোটেলেই শুভেচ্ছা বিনিময় করতেন দেশটির বাদশাহ ও যুবরাজেরা।  গত ৪ নভেম্বর দুর্নীতির অভিযোগ এনে প্রিন্স মিতেবসহ ২শ’ জনের বেশি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও ব্যবসায়ীকে আটক করে সৌদি প্রশাসন। 

এরপর তাদেরকে বিলাসবহুল রিটজ কার্লটন হোটেলে রাখা হয়েছিল।  এদের মধ্যে কমপক্ষে ১২ জন প্রিন্স ও চারজন মন্ত্রীও ছিলেন।  তখন থেকেই বিলাসবহুল এই হোটেলে ঢোকা এবং বের হওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। 


চলতি নভেম্বর মাসের জন্য সব ধরনের বুকিং নেয়া বন্ধ ঘোষণা করে ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে হোটেল কর্তৃপক্ষ।  তখন রিটজ কার্লটনের সাথে ইন্টারনেট, মোবাইল ও ফোনসহ সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন দেয়া হয়। 


গত মে মাসে সৌদি সফরে গিয়ে এই হোটেলেই উঠেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  ৫২ একর জায়গার উপর নির্মিত বিলাসবহুল হোটেলটিতে ৪৯২টি কক্ষ রয়েছে।  আছে বেশ কয়েকটি বিশ্বমানের সুবিধা সম্বলিত রেস্টুরেন্ট।  এছাড়া পুরুষদের জন্য রয়েছে বিশেষ রকমের ‘স্পা’র ব্যবস্থা।