প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সারাদেশের জেলা ও উপজেলায় মডেল মসজিদ নির্মাণ প্রকল্পের আওতাধীন উখিয়ার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের মরিচ্যা বাজারে মসজিদ নির্মাণ কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করায় কাজ শেষ না হওয়ার আগেই ৮টি গ্রেডবিম (পিলার) ধ্বসে পড়ায় উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্থানীয় ইউপি সদস্য এম মনজুর আলম।

বিষয়টি আমলে নিয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করেন ইউএনও তানভীর হোসেন। এসময় তিনি অভিযোগের সত্যতা প্রমান পাওয়া সাথে সাথেই চলমান কাজ বন্ধ করে পুনরায় নতুনভাবে নির্মাণ কাজ শুরু করার নির্দেশনা দেন ।

এসময় উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা মো. আল মামুন, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক উখিয়ার কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, ইউপি সদস্য যথাক্রমে এম মনজুর আলম,স্বপন শর্মা রনি, শাহাজাহান চৌধুরী, সরওয়ার কামাল বাদশা, বোরহান উদ্দিন চৌধুরী, শাহাজাহান শাহিনসহ স্থানীয় মুসল্লী, এলাকাবাসী এবং ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, উপজেলা পর্যায়ে মডেল মসজিদ বরাদ্দ আসলে সেটি হলদিয়া পালং ইউনিয়নের আওতাধীন মরিচ্যা বাজারের পশ্চিম পাশে নির্মাণের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। এ কাজ তদারকি দায়িত্বে রয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এস এম ইমরুল কায়েস চৌধুরী।

অভিযোগে এম মনজুর আলম উল্লেখ করেন,”মডেল মসজিদ নির্মাণকাজে ব্যবহৃত মালামাল ও সরঞ্জাম ২য় কিংবা ৩য় ক্যাটাগরির। যা জনসম্মুখে প্রমাণ মিলেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য হিসেবে নিজেও পরিদর্শন করে এটির সত্যতা পেয়েছি।”

তিনি জানান,”চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরীর মনগড়া ভাবে নির্মাণ কাজের তদারকির কারণে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করে লাখ লাখ টাকা দূর্নীতি করছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

এ বিষয়ে নির্মাণাধীন মসজিদের তদারকির দায়িত্বে থাকা ইঞ্জিনিয়ার আরিফ বলেন, অতি বৃষ্টির কারণে পিলারের নিচে পানি জমায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে সেটা আমরা ঠিক করে দিয়েছি। নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রীর ব্যবহারের বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর হোসেন বলেন, মডেল মসজিদ নির্মাণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। সেই প্রকল্প নিয়ে কোনও অনিয়ম, অবহেলা মেনে নেওয়া যায় না। প্রধানমন্ত্রীও মেনে নেবেন না। অভিযোগ পেয়ে আমি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং কাজে অসংগতি পাওয়ায় চলমান কাজ বন্ধ করে পুনরায় নতুনভাবে নির্মাণ কাজ শুরু করার নির্দেশ দিয়েছি। আমরা চাই মডেল মসজিদটি সঠিকভাবে মান ঠিক রেখে কাজ করা হোক।