ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারকে হত্যার ঘটনায় জড়িত এবং হেফাজতে থাকা জিহাদকে নিয়েই তল্লাশি-অভিযান চালাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি। শুক্রবার রাতে তার দেওয়া তথ্য অনুসারে ভাঙরের কৃষ্ণমাটি এলাকার বাগজোলা খাল থেকে পচা-দুর্গন্ধযুক্ত একটি ব্যাগ উদ্ধার করেছে সিআইডি।

তবে ব্যাগটির ভেতরে মরদেহের খণ্ডিত অংশ রয়েছে কিনা তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সেটি পরীক্ষা করে দেখছেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে আজও ওই এলাকায় অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন কলকাতা সিআইডির কর্মকর্তারা। শুক্রবার বারাসাত মুখ্য আদালতে হাজির করা হয় আসামি জিহাদকে। তার বিরুদ্ধে খুন, অপহরণ, তথ্য নষ্ট করা, ভুল তথ্য দেওয়া এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়। সেসব আমলে নিয়ে জিহাদকে ১২ দিনের সিআইডি হেফাজতে দেন আদালত।

প্রসঙ্গত, গত ১২ মে চিকিৎসার জন্য কলকাতায় যান আওয়ামী লীগদলীয় এই সংসদ সদস্য। এরপর ১৬ মে থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন তিনি। পরে ১৮ মে থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন সংসদ সদস্যের পরিচিত ভারতের বরানগরের বাসিন্দা গোপাল বিশ্বাস। এরপর আনোয়ারুল আজিম আনারের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে কলকাতা পুলিশ। বুধবার কলকাতার একটি ফ্ল্যাটে তাকে হত্যার তথ্য জানায় ভারতীয় পুলিশ।