লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে এবার গৌতম বর্মন (২৮) নামে ভারতীয় যুবক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৬ জুন) সন্ধ্যায় পাটগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এর আগে ভোরে বাংলাদেশের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম ও ভারতের মেখলিগঞ্জ থানার সীমান্ত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গৌতম বর্মন সীমান্তে গরু পারাপারের কাজ করতেন বলে জানা গেছে। তিনি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ থানার ফুলকারডাবরী এলাকার বাসিন্দা। তার বাবার নাম নিপেন বর্মন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ভোরে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ডিএমপি-১ প্রধান পিলারের ৯ নম্বর উপপিলারের ভারতের ১০১ ফুলকারডাবরী ও বাংলাদেশের আঙ্গোরপোতা সীমান্ত এলাকা দিয়ে উভয় দেশের ৫ থেকে ৭ জনের একটি দল ভারতীয় গরু পারাপারের চেষ্টা করছিল। ওই দলের মধ্যে গৌতম বর্মনও ছিলেন। এ সময় কোচবিহার জেলার রাণীনগর ৬ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের অর্জুন ক্যাম্পের টহল দলের সদস্যরা গরু পারাপারকারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে গৌতম বর্মন গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। তার মরদেহ ভারতের কুচলিবাড়ী থানা পুলিশ বিএসএফের সহায়তায় ময়নাতদন্তের জন্য মাথাভাঙ্গা হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যায়।

এর আগে চলতি বছরের ৪ জুন রাতে বিএসএফের গুলিতে জগতবেড় ইউনিয়ন সীমান্তে ইউছুফ আলী (২৬) ও গত ১ এপ্রিল একই ইউনিয়ন সীমান্তে রবিউল ইসলাম (৫২) নামে দুই বাংলাদেশি গরু পারাপারকারী নিহত হন।৫১ বিজিবির পানবাড়ি কোম্পানি কমান্ডার নজরুল ইসলাম বলেন, অর্জুন ক্যাম্পের বিএসএফ কমান্ডার সীমান্তে নিহতের ব্যাপারে আমাদেরকে জানিয়েছেন। নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশি কিনা- জানতে চেয়েছিল। আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশি নয়, ভারতীয় নাগরিক।