রাজধানী ঢাকার মিরপুরে অটোচালকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।সোমবার (২০ মে) দলটির সেক্রেটারি জেনারেল ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরোয়ার এক বিবৃতি এ উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন,‘১৯ মে রোববার সকালে বিকল্প ব্যবস্থা না করে অটোরিকশা বন্ধের ঘোষণায় বিক্ষুব্ধ অটোশ্রমিকরা মিরপুরের ১০ নম্বর গোল চত্বরে এসে জড়ো হয় এবং সড়ক অবরোধ করে। এ সময় পুলিশ অটোচালকদের সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষের একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ অটোচালকরা পুলিশ বক্সে আগুন ধরিয়ে দেয়। যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায় এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটে।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, রাজধানী ঢাকার সড়কে হাজার হাজার ব্যাটারিচালিত রিকশা, ভ্যান ও থ্রি-হুইলার চলাচল করে। এই পেশার সাথে কয়েক লাখ মানুষ জড়িত। অটোচালকদের প্রায় সকলেই অশিক্ষিত ও অদক্ষ। তাদের চাকুরি করার তেমন কোনো সুযোগ নেই। তাই বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টি না করে অটোরিকশা বন্ধ করা হলে শতশত পরিবার পথে বসবে। তাদের না খেয়ে থাকতে হবে। অনেকেই ঋণ করে ব্যাটারিচালিত রিকশা, ভ্যান ও থ্রি-হুইলার রাস্তায় নামিয়েছেন।

তাদের ঋণের কিস্তিও বন্ধ হয়ে যাবে। এই অবস্থায় তারা মহা বিপদে পড়বে। এমতাবস্থায় সরকারের উচিত তাদের ন্যায়সংগত দাবি-দাওয়া সহানুভুতির দৃষ্টিতে বিবেচনা করে তাদের ন্যায্য অধিকার প্রদান করা। তারাও মানুষ, সমাজের অন্যান্যদের মতো তাদেরও পরিবার-পরিজন নিয়ে সমাজে বেঁচে থাকার অধিকার আছে। তাই তাদের ন্যায্য দাবিগুলো অবশ্যই বিবেচনার দাবি রাখে।

অটোচালকদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে তাদের ন্যায়সংগত দাবি-দাওয়া মেনে নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতির অবসান ঘটানোর জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।