দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে সমালোচিত মোজাম বিনোদন পার্কে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানে অসামাজিক কার্যক্রম করার সময় ৫ পতিতা নারী সহ ৫ জন খদ্দেরকে আটক করেছে আদালত।

শনিবার দুপুরে উপজেলার ১নং বুলাকীপুর ইউনিয়নের কালুপাড়া গ্রামে অবস্থিত মোজাম বিনোদন পার্কে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান আদালত। এতে নেতৃত্বে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রফিকুল ইসলাম। অভিযানে ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান আসাদের নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি দল অংশ নেন।

অভিযান চলাকালে পার্কের আবাসিক রুমে অসামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার সময় পৃথক কয়েকটি রুম থেকে পাঁচ জোড়া নারী-পুরুষকে আটক করে পুলিশ। পরে আদালত আটক ৫ খদ্দেরকে ৭ দিনের কারাদন্ড এবং আটক ৫ নারীকে ১ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করেন।

সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন, দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার গুড়গুড়ী গ্রামের আব্দুল মাবুদের ছেলে আব্দুল কাদের (২২), মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত সাইফুল ইসলামের ছেলে গাউসুল আজম (২৭), নবাবগঞ্জ উপজেলার রোস্তমপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে সুজাউল হক (৪০), শিবরামপুর গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে সারোয়ার (৩০) এবং হাকিমপুর উপজেলার ইটাইপুর গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মতিয়ার রহমান (৪০)।

অপরদিকে অর্থদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কোমরপুর গ্রামের শরিফুল ইসলামের মেয়ে শারমিন (৩০), বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সোরদহ গ্রামের মোহাম্মদ আলীর মেয়ে মাহি (১৮), দুর্গাটা গ্রামের আশরাফ আলীর মেয়ে শ্রবনী (৩৫), নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার আব্দুল্লাহপুর গ্রামের শরিফুল ইসলামের মেয়ে মারিয়া (২০) এবং দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার বাওনা গ্রামের আকাশ মিয়ার মেয়ে মাহবুবা (২৫)।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, কারাদন্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিদেরকে রবিবার সকালে দিনাজপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হবে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রফিকুল ইসলাম বলেন, অসামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার অভিযোগে দন্ডবিধির ২৯৪ ধারা অনুযায়ী আটক ব্যক্তিদের কারাদন্ড ও অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে।