গত ৬ মাসে বাংলাদেশের ক্রিকেট যতটা চড়াই-উতরাই দেখেছে, তা হয়তো গত কয়েক বছরেও দেখেনি ক্রিকেট বিশ্ব। ওয়ানডে বিশ্বকাপে ব্যর্থতা, দেশের ক্রিকেটের বড় দুই বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের প্রকাশ্য দ্বন্দ্বসহ অনেক ইস্যুতে টক অব দ্য কান্ট্রিতে রূপ নিয়েছে দেশের ক্রিকেট।

তবে এসব বিষয়ে এখনও নিশ্চুপ দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্তা সংস্থা-বিসিবি। এবার সব জল্পনা-কল্পনা শেষে সবকিছু নিয়ে আলোচনায় বসতে যাচ্ছে বিসিবি।

বিসিবির সূত্র জানিয়েছে, বিসিবির নবম বোর্ড সভা আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) বসবে। এদিন বিকেল ৪টায় মিরপুর শের-ই বাংলায় বিসিবির কার্যালয়ে পরিচালকদের বহুল কাঙ্ক্ষিত এই বোর্ড মিটিং শুরু হবে। এই সভায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বিসিবি।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিনের ভাষ্য, আমরা আশা করছি আগামীকাল (রোববার) ৪টায় শুরু হবে বোর্ড মিটিং। আমাদের মিটিংয়ে ফিন্যান্সিয়াল ব্যাপারগুলোর পাশাপাশি নির্বাচক প্যানেল নিয়ে আলোচনা হবে। এ ছাড়াও আমাদের স্টেডিয়ামের কাজ নিয়ে বোর্ডকে আপডেট জানানো হবে। স্টেডিয়াম সংশ্লিষ্ট কিছু বিষয় অনুমোদনের জন্য বোর্ডে পেশ করা হবে।

তিনি যোগ করেন, এটা আমাদের এজেন্ডায় রাখা আছে। বোর্ডে আলোচনার পর যদি বলার মতো কিছু থাকে তখন আপনারা জানতে পারবেন। আমাদের সিলেক্টরদের মেয়াদ কিন্তু শেষ হয়ে গেছে। এরপর তো মেয়াদ আরও বাড়ানো হয়েছিল। বোর্ডে আলোচনার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানা যাবে। বাদ দেওয়ার বিষয় নিয়ে তো কেউ আলোচনা করেনি। বিষয়টা হচ্ছে এই কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। যেহেতু মেয়াদ শেষ এটা তো স্বাভাবিক ব্যাপার যে পরবর্তী কমিটিতে কারা থাকবেন বিষয়টা বোর্ডের নীতিগত অনুমোদন দরকার। সেজন্য ব্যাপারটা এজেন্ডায় রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, এই বোর্ড সভার আলোচনার বিষয় হিসেবে ওয়ানডে বিশ্বমঞ্চে ব্যর্থতার রিপোর্ট পর্যালোচনা ও সিদ্ধান্ত, জাতীয় দলের কোচ নিয়োগ ও পজিশন, অধিনায়ক, নির্বাচক প্যানেল, শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম, নারী বিশ্বকাপ এবং ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তির বিষয় থাকছে।

এর আগে, সবশেষ গত বছরের জুনে বিসিবির সবশেষ বোর্ড সভা বসেছিল। এবার আরও আগে এই সভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপনসহ পরিচালকরা জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত থাকায় এতে বিলম্ব হয়।

নির্বাচনের পর বিসিবি সভাপতির ব্যস্ততার কারণে তারিখ পাওয়া যাচ্ছিল না। প্রথমবারের মতো যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী হওয়া নাজমুল মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন মিটিং-সভায় ব্যস্ত ছিলেন। অবশেষে তারিখ চূড়ান্ত হয়।

বিশ্বকাপের দল থেকে তামিম ইকবালের বাদ পড়া, এরপর সাকিব-তামিমের পাল্টাপাল্টি কথার লড়াই এবং সবশেষ বিশ্বকাপের চরম ব্যর্থতা সবকিছু নিয়ে আলোচনা করা হবে এই বোর্ড সভায়। এর মধ্যে বিসিবির তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি তাদের রিপোর্ট জমা দিয়েছেন। এই সভায় নির্বাচক প্যানেলের ভবিষ্যৎ-ও নির্ধারিত হতে পারে।

বার্তা বাজার/জে আই