জাতীয় পার্টি নাকি স্বতন্ত্রদের নিয়ে গঠিত হবে বিরোধী দল। এ নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে। তবে শুরু থেকেই জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হওয়ার বাসনা প্রকাশ করে আসছে।

বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে বিরোধী দলীয় উপনেতার দপ্তরে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভায় এ সিদ্ধান্ত মোতাবেক জিএম কাদেরকে বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচন করেছে দলটি। এছাড়াও দলটির কো-চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে বিরোধী দলের উপনেতা ও মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নুকে বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। তবে এখনো লিখিত আকারে কোন চিঠি স্পিকারের নিকট পাঠায়নি দলটি।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, এবার সত্যিকারের কার্যকর বিরোধী দল হিসেবে সংসদে ভূমিকা রাখতে চান জাপার সংসদ সদস্যরা। নিয়ম বলছে, জাতীয় পার্টি সংসদে প্রধান বিরোধী দল হওয়ার ইচ্ছাপোষণ করলেও এর এখতিয়ার শুধু স্পিকারের। আবার এদিকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬২টি আসন পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। এই ৬২ জনের বড় একটি অংশ জোট গঠন করে বিরোধী দল হতে চায়।

বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, জিএম কাদের এর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতার দপ্তরে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে বিরোধী দলীয় নেতা, কো-চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বিরোধী দলীয় উপনেতা ও মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নুকে বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও কোন চিঠি ইস্যু করা হয়নি। রোববার স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে চিঠি পাঠানো হবে।

বার্তাবাজার/এম আই