ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ এই সংসদীয় আসনটি কসবা ও আখাউড়া উপজেলা নিয়ে একটি সংসদীয় আসন। এই আসনটি বর্তমান এমপি আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তৃতীয় বারের মত আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে আবারো নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন। আসন্ন এই নির্বাচনে দুই উপজেলার সাধারণ মানুষ আবারো আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এর উপর আস্থা রেখেছেন বলে মনে করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

তারা বলেন,দুই উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন ও হাজার হাজার বেকার যুবক-যুবতীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা সহ নানান উন্নয়ন কর্মকান্ডে মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

দেখা যায়,আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনমন্ত্রীর প্রতিপক্ষ কোন শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকলেও নির্বাচনী প্রচারণার মাঠে সরূপ অবস্থানে রয়েছে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

দেখা যায়, গত ১৯ ডিসেম্বর থেকে প্রচার প্রচারণা শুরু হওয়ার পর থেকেই আইনমন্ত্রী সংসদীয় আসনে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন ।
সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা হলে তারা বলেন, গত দশ বছরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আমাদের দুই উপজেলা তে অনেক উন্নয়ন করেছেন । রাস্তাঘাট,ব্রিজকালভার্ড,স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা,মসজিদ,মন্দির সহ নানান উন্নয়ন করেছেন তিনি। বিশেষ করে বিনা পয়সায় হাজার হাজার ছেলে-মেয়েকে চাকরীর ব্যবস্থা করে দিয়েছে। এ ছাড়াও সামাজিক বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ভূমিকা প্রশংসনীয়।

আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল বলেন,এই মূহুর্তে কসবা-আখাউড়ায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এর পরবর্তীতে বিকল্প কোন লোক সৃষ্টি হয় নাই বল আমি মনে করি। অত্র এলাকার শত শত বেকার যুবকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে দিয়েছে। অতীতে অনেক সংসদ সদস্য ছিল কিন্তু উনার মত কেউ মানবসেবায় নিয়োজিত ছিল না। এর মধ্যে আনিসুল হক আসার পরে যেমন মানব উন্নয়ন হয়েছে, ঠিক সেইভাবে রাস্তাঘাট অবকাঠাম উন্নয়ন হয়েছে। গরিব অসহায় নিপীড়িত নির্যাতিত অনেক মানুষের উপকারে এসেছে। সর্বোপরি আমি মনে করি আগামী ৭ জানুয়ারি ভোট কেন্দ্র গিয়ে গনজোয়ার সৃষ্টি করে ভোট এর মাধ্যমে উনাকে আমাদের ভালোবসা দেখাতে হবে।

বার্তা বাজার/জে আই