আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করে বলেছেন, বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নির্বাচনে আতঙ্ক ছড়াতে প্রয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ নেতা ও প্রার্থীদের হত্যার পরিকল্পনা করছে। শনিবার ( ৩০ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ আহ্বান জানান কাদের।

কাদের বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে এই নির্বাচনে নৌকার বিজয়ের কোনো বিকল্প নেই। এমন প্রেক্ষাপটে দলীয় প্রার্থী ও নেতাকর্মীসহ সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ৭ জানুয়ারি ভোটার উপস্থিতি নিয়ে প্রয়োজনে লাশ বানিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে পারে জনগণকে ভোটকেন্দ্রে আসা থেকে বিরত রাখতে। আইনশৃঙ্খলাবাহিনীসহ সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘লন্ডন থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে গুপ্তহত্যার পথে তাঁরা এগিয়ে যাবে।

হয়তো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রার্থীকে লাশ বানানোর চক্রান্ত আছে নির্বাচনকে ঘিরে। সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। খুবই ভয়াবহ পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে। প্রস্তুতি নিচ্ছে ভয়ংকর কোনো হামলা, গুপ্ত হত্যার দিকে যাচ্ছে এমন খবর পাচ্ছি।

নেতাকর্মীদের সতর্ক করছি। নির্বাচন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। এ চ্যালেঞ্জ আমাদের অতিক্রম করতে হবে। সারা দেশের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সতর্ক পাহারায় থাকতে হবে।’

নতুন বছরে বাংলাদেশের গণতন্ত্রের নতুন যাত্রা শুরু হবে উল্লেখ করে দলীয় প্রার্থীসহ সবাইকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলার কড়া নির্দেশনা দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

কাদের বলেন, বিএনপি নিজেরাই নিজেদের অপকর্ম ও নেতিবাচক রাজনীতির জন্য নিশ্চিহ্ন ও ধ্বংসের জন্য দায়ী। অন্য কেউ নয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দীসহ কেন্দ্রীয় ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বার্তা বাজার/জে আই