আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন উপজেলা পরিষদ থেকে সদ্য পদত্যাগ করা তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর এনায়েত হোসেন মন্টু।

এ উপলক্ষে সোমবার দুপুরে প্রতীক পাওয়ার পর মির্জাপুর সরকারি এস.কে.পাইলট মাঠে (শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম) আয়োজিত জনসভায় হাজারো মানুষের ঢলে জনসমুদ্রে পরিণত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী মন্টুকে সমর্থন জানায়।

এসময় উপজেলা আ.লীগের অর্ধশতাধিক নেতাসহ প্রায় ১০ হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থক এ জনসভায় অংশ নেয়। সভায় অন্যান্যের মধ্যে পৌর মেয়র সালমা আক্তার, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মীর্জা শামীমা আক্তার শিফা, ভাইস চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি মীর শরীফ মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার তাহরীম হোসেন সীমান্ত, টাঙ্গাইল জেলা আ.লীগের সদস্য অবসরপ্রাপ্ত মেজর এ.হাফিজ ও রাফিউর রহমান খান ইউসুফজাই সানি বক্তৃতা করেন।

এসময় উপজেলা আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতা উপস্থিত ছিলেন। এরআগে টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগের সহ-সম্পাদক মীর মঈন হোসেন রাজীবের নেতৃত্বে মির্জাপুর উপজেলা পরিষদ চত্বর এলাকা থেকে শত শত মোটরসাইকেল ও ১৫১টি ট্রাক নিয়ে এক বিশাল মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি একাব্বর হোসেন জাতীয় মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে গিয়ে জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মীর এনায়েত হোসেন মন্টু বলেন, এবার নির্বাচনে টাঙ্গাইল বনাম মির্জাপুর লড়াই হবে। আমরা জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। মির্জাপুরের আপামর জনগণ আমাদের পক্ষে। তারা এ মির্জাপুরটিকে আবারও সুন্দর দেখতে চায়, তাই তারা আমাকে সমর্থন দিয়েছেন। আমাদের স্লোগান টাঙ্গাইল হটাও মির্জাপুর বাঁচাও।

এসময় তিনি মির্জাপুরবাসীর কাছে মির্জাপুরকে সুন্দর ও মাদকমুক্ত রাখতে ট্রাক মার্কায় ভোট চান।

বার্তা বাজার/জে আই