নিজ দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন পাকিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মডেল-অভিনেত্রী ও গায়িকা আয়েশা ওমর। অভিনেত্রী জানান, পাকিস্তানে নিরাপদ বোধ করছেন না তিনি। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আয়েশা।

জানা গেছে, দেশটিতে বর্তমান অর্থনৈতিক দুরবস্থা এবং নারীদের নিরাপত্তার শঙ্কা রয়েছে। মূলত এ কারণেই নিজ দেশ ছাড়তে চাচ্ছেন আয়েশা। সম্প্রতি আদনান ফয়সাল সঞ্চালিত একটি পডকাস্টে হাজির হয়ে এই ঘোষণা দেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে আয়েশা বলেন, ‘আমি এখানে (পাকিস্তান) নিরাপদ বোধ করছি না। আমি রাস্তায় একা হাঁটতে চাই। কিন্তু খোলা হাওয়ায় নারী রাস্তায় হাঁটতে পারে না।

এটা কি আমাদের জন্য দুঃখজনক নয়? আমি গাড়িতে বসতে চাই না, সাইকেল চালাতে চাই। কেন আমি বাইক চালাতে পারব না?

অন্য দেশের উদাহরণ টেনে আয়েশা বলেন, পুরুষরা কেন বুঝতে পারে না যে, পাকিস্তানি নারীরাও তাদের সঙ্গে সমান তালে এগিয়ে যেতে পারে। অপহরণ, ধর্ষণ বা ছিনতাইয়ের ভয়ে স্বাধীনভাবে নিজ দেশের রাস্তায় হাঁটতে পারি না। নিজ দেশেই নিরাপদ বোধ করি না। এমনকি হেনস্তা ছাড়া এখানকার কোনো পার্কেও যেতে পারি না।

নিজ দেশে নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা একজন মানুষের মৌলিকা চাহিদা। পৃথিবীর সব দেশেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটে। অহরহ দুর্ঘটনা ঘটছে। কিন্তু সেখানকার মানুষ তো অন্তত নিরাপদে রাস্তায় চলতে পারেন। আর আমাদের দেশে রাস্তায় চলতে গেলে ছেলেরা টিজ করবে, না হয় শরীরে স্পর্শ করবে- এটা কী? এভাবে কি একজন নারী নিরাপদভাবে নিজের দেশে বসবাস করতে পারে।

বার্তা বাজার/জে আই