আলজাজিরার সাংবাদিক ওয়ায়েল আল দাহদুহর সঙ্গে গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খান ইউনিসের একটি স্কুলে সংবাদ সংগ্রহের সময় ইসরাইলের বিমান বাহিনীর গোলায় গুরুতর আহত ক্যামেরাম্যান সামের আবু দাক্কা মারা গেছেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে আলজাজিরা কর্তৃপক্ষ। মধ্যপ্রাচ্যে কার্যক্রম শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত অঞ্চলটিতে বিভিন্ন সংঘাতে আলজাজিরার ১৩ জন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। এ তালিকায় সর্বশেষ নাম সামের আবুদাকা।

খান ইউনিসের ফারহানা স্কুল নামের যে স্কুলটিতে সংবাদ সংগ্রহের জন্য গিয়েছিলেন আলজাজিরা অ্যারাবিকের ওয়ায়েল এবং সামের, ইসরাইলি বাহিনী অভিযান শুরুর পর থেকে সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন ঘর-বাড়ি হারানো ফিলিস্তিনিরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সে সময় ওই এলাকায় ব্যাপক গোলা বর্ষণ করছিল ইসরাইলি বিমান বাহিনী। গোলার আঘাতে আহত হন ওয়ায়েল এবং সামের উভয়েই, তবে সামেরের আঘাত বেশি গুরুতর ছিল।

আলজাজিরার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ওই এলাকায় অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকায় দীর্ঘসময় চিকিৎসা সেবা পাননি সামের। পরে অ্যাম্বুলেন্স এলেও সামেরকে আর বাঁচানো যায়নি। তার আগেই মৃত্যু হয়েছিল তার। দুই মাসের বেশি সময় ধরে গাজায় চলা নির্বিচার হামলায় ১৮ হাজার ৭৮৭ জনের মৃত্যুর হয়েছে। তাঁদের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। বাস্তুচ্যুত হয়েছেন প্রায় ১৮ লাখ মানুষ। ইসরাইলি বাহিনীর হামলা থেকে বিদ্যালয়, হাসপাতাল, শরণার্থীশিবির—কিছুই বাদ যাচ্ছে না।

বার্তাবাজার/এম আই