ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের জমজমাট আসর পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি মাঠে গড়াবে টুর্নামেন্টের নবম আসর। আসন্ন এই আসরকে সামনে রেখে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ক্রিকেটারদের নিলাম।

বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) লাহোরের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমিতে অনুষ্ঠিত নিলাম শেষে ৬টি ফ্র্যাঞ্চাইজি দল নিজেদের স্কোয়াড চূড়ান্ত করেছে। তবে এবারের আসরে কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটারকেই নেয়নি কোনো দল।

এর আগে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের ৭ জন ক্রিকেটার ড্রাফটে ছিলেন। তবে সেখানে নাম থাকলেও, বিপিএল বাদে অন্য সব ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরে সম্প্রতি না খেলার কথা জানিয়েছিলেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এর আগে পাকিস্তানের এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ড্রাফটে মোট ৪৯৩ জন বিদেশি খেলোয়াড়কে রাখা হয়েছিল। তালিকায় বাংলাদেশি খেলোয়াড় ছিলেন ২১ জন। সবচেয়ে দামি প্লাটিনাম ক্যাটাগরিতে ছিলেন একমাত্র সাকিবই।

এ ক্যাটাগরির ভিত্তিমূল্য ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার (প্রায় দেড় কোটি টাকা)। তবে জাতীয় দলে বেশি সময় দিতেই দুদিন আগে সেখান থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন টাইগার বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

এছাড়া বাংলাদেশ থেকে ডায়মন্ড ক্যাটাগরিতে নাম ছিল— তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাসকিন আহমেদের। তাদের ভিত্তিমূল্য ধরা হয় ৬০ হাজার ডলার (প্রায় ৬৬ লাখ টাকা)।

এদিন বিকেল থেকে শুরু হওয়া পিএসএলের নিলামে ৬টি ক্যাটাগরিতে খেলোয়াড়দের নাম ডাকা হয়। পরে পাকিস্তান ও বিদেশি মিলিয়ে মোট ৪০ জন ক্রিকেটারকে দলে নেয় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। এর আগে দলগুলো ক্রিকেটারদের বড় একটি অংশকে রিটেশন লিস্টে ধরে রাখে।

এবারের পিএসএল আসরের ম্যাচগুলো চারটি ভেন্যু— করাচি, লাহোর, মুলতান ও রাওয়ালপিন্ডিতে অনুষ্ঠিত হবে। ১৭ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধনী ম্যাচে লড়বে গত আসরের দুই ফাইনালিস্ট লাহোর কালান্দার্স ও ইসলামাবাদ ইউনাইটেড। পরদিন মুলতান সুলতান ও করাচি কিংস মুখোমুখি হবে। ১৭ মার্চ আসরের ফাইনাল হবে করাচিতে।

বার্তা বাজার/জে আই