বর্ণাঢ্য আয়োজনর মধ্যেদিয়ে ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার (১ ডিসম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে বন্দর দিবসের শুভ উদ্বোধন করে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান।

এরপর প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা, সর্বোচ্চ বন্দর ব্যবহারকারীদের ক্রেস্ট প্রদান, কৃতিত্বপূর্ণ কাজের জন্য নির্বাচিত কর্মকর্তা কর্মচারীদর ক্রেস্ট প্রদান, বিদায়ী কর্মকর্তা কর্মচারীদর ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। মোংলা বন্দরের অগ্রগতি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠান এবং মধ্যাহ্ন ভোজের মধ্যদিয়ে শেষ হয় বন্দরের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনুষ্ঠানিকতা।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সামরিক বেসামরিক কর্মকর্তা, বন্দরের বিভিন্ন কর্মকর্তা, বন্দর ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়শনের নেতা, মোংলায় কর্মরত সংবাদ কর্মীগণ, সিবিএ নেতা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ।

আজ ৭৪ বছরে পদার্পন করলো দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমুদ্র বন্দর মোংলা। ৭৩ বছর আগে ১৯৫০ সালর ১ ডিসম্বর দেশের সামুদ্রিক বন্দর হিসেবে যাত্রা শুরু করে মোংলা বন্দর। একই বছর ১১ ডিসম্বর পশুর নদীর জয়মনির ঘোল নামক স্থানে ব্রিটিশ বাণিজ্যিক জাহাজ ‘সিটি অব লিয়ন্স’ নোঙ্গর এর মাধ্যমে প্রথম মোংলা বন্দরের কার্যক্রম শুরু হয়। প্রথমে এই বন্দরের নাম চালনা বন্দর থাকলেও, ১৯৮৭ সালের ৮ মার্চ চালনা বন্দরের স্থলে এর নতুন নামকরণ করা হয় ‘মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ’।

বার্তাবাজার/এম আই