কক্সবাজারের উখিয়ার ইনানীতে বহুল আলোচিত ডাবল মার্ডার মামলার ৬ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। সেই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরো ৬ মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

দণ্ডিত আসামিরা হলেন, মুফিদুল আলম সিকদার, আবু কায়সার শিপলু, সাজ্জাদ হোসেন সিকদার, শামশুল আলম, নুরুল কবির ও শাকের আলী। এরা সকলেই উষিয়া উপজেলার বাসিন্দা। এই মামলায় অপরাধ প্রমাণ না হওয়ায় অবশিষ্ট ৮ আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করেছেন বিচারক।

অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বেঞ্চ সহকারী দেলোয়ার হোসাইন এ তথ্য জানান।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতে এসটি-২০১/২০০৮ মামলার শুনানি শেষে বিচারক মহিউদ্দিন মুরাদ পৃথক ধারায় এ রায় প্রদান করেন। রায় ঘোষণাকালে দণ্ডিত শাকের আলী ব্যতীত অন্যান্য আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, আসামিদের ফৌজদারী দণ্ডবিধির ৩০২/১৪৯ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায় আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৩০৭ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে আসামিদের প্রত্যেককে আরো ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার করে জরিমানা অনাদয়ে আরো ২ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। উভয় সাজা একসঙ্গে চলবে।

রাষ্ট্র পক্ষে অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মোজাফফর আহমদ হেলালী মামলাটি পরিচালনা করেন। আসামি পক্ষে প্রধান আইনজীবী ছিলেন আবুল কালাম আজাদ।

প্রসঙ্গতঃ ২০০১ সালের ২৪ জুলাই জায়গা জমির বিরোধের সূত্র ধরে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত হন ছলিম উল্লাহ প্রকাশ পুতন আলী মিস্ত্রি ও শামসুল আলম প্রকাশ গুরা মিয়া। পরের দিন এ ঘটনায় উখিয়া থানায় মামলা করেন নাজির হোসেন।

বার্তা বাজার/জে আই