নীলফামারীর ডিমলায় জমি নিয়ে বিরোধে ছেলের কোদালের কোপে বাবা মোঃ আজিজুল ইসলাম (৬০) নিহত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকালে ওই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ছেলে মোঃ নূর ইসলাম (৩৫) পলাতক আছেন।

নিহত মোঃ আজিজুল ইসলাম (৬০) উপজেলার উত্তর সোনাখুলী এলাকার মৃত পহর উদ্দিন মাহমুদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, আজ সকাল ৯টায় নিহত তার স্ত্রীকে নিয়ে আবাদি জমিতে কাজ করে। এসময় মোঃ নূর ইসলাম এসে তাদের সাথে বাকবিতন্ডা জড়িয়ে পড়লে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে ছেলের কাছে থাকা কোদাল দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে বাবা আজিজুলকে। নিহতের স্ত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে চিকিৎসার জন্য তাকে ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার বেগতিক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (রমেক) প্রেরণ করলে সাড়ে বারোটায় যাত্রাপথে মারা যায় তিনি।

নিহতের চাচাতো ভাই হাফিজুল ইসলাম জানান, আমার ভাইকে কুপিয়ে জখম করে নূর ইসলাম আমাকে মুঠোফোনে কল দিয়ে বলে “তোর ভাইকে চোটাইছি (কুপিয়েছি) তুই পারলে পুলিশ নিয়ে এসে আমাকে ধর ” বলে ফোন কেটে দেয়।

ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের পরিবারে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে পারিবারিক কলহ চলে। যার প্রেক্ষিতে আজকের এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে। নিহতের মুখ ঘাড়সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করার চিহ্ন রয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের রিপোর্টের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযুক্ত নূর ইসলাম পালাতক রয়েছে। এখনও কাউকে আটক হয়নি, বলেন তিনি।

বার্তা বাজার/জে আই