স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশটাকে কার কাছে দেবো। কে দেখাশোনা করবে, উন্নয়ন করবে। সেই লোকই তো দেখি না। আমরা তো অন্ধকারে ঝাঁপ দিতে পারবো না। দেশের মানুষ বুঝে শেখ হাসিনাই সঠিক নেতৃত্ব। তিনি সেটা প্রমাণ করে দিয়েছেন। বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার (২৫ নভেম্বর) রাতে মানিকগঞ্জ শহরের বান্দুটিয়া আফতাব উদ্দিন মেমোরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পৌরসভার ৭, ৮, ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপিকে ক্ষমতায় আসতে হলে নির্বাচনের মাধ্যমে আসতে হবে। জ্বালাও-পোড়াও করে ক্ষমতায় আসা যায় না। ভোট পেতে হলে উন্নয়ন করতে হয়। মানুষকে দেখাতে হবে কী কাজ করেছি ও কী উন্নয়ন করেছি।

তিনি বলেন, বিএনপি তো মানুষের কাছে ভোট চাচ্ছে না। বিএনপি মানুষের পাশে নেই, তাদের তো দেখিনি মানুষের কাছে যেতে। মানুষের প্রতি দরদ থাকলে তারা মানুষের কাছে আসতো। করোনার সময় মানুষের পাশে তাদের দাঁড়াতে দেখিনি। ওই সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিল।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত বলেছিল মেয়েদের শিক্ষার প্রয়োজন নেই। তারা ঘরে থাকবে। তাদের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। এই হলো বিএনপি-জামায়াতের নীতি। তারা দেশকে ভালোবাসে না। স্বাধীনতার সময় তারা বিরোধিতা করেছিল। এখনও দেশের উন্নয়নে তারা বিরোধিতা করছে।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আরশেদ আলী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভা সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম। এ সময় বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি পৌর মেয়র রমজান আলী, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, সাংগঠনিক সম্পাদক সুদেব সাহা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাফিল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুর রাজ্জাক রাজা, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বাবুল সরকার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক তুষার, জেলা মহিলা লীগের সভাপতি মৃদুলা রহমান প্রমুখ।

বার্তা বাজার/জে আই