টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে লৌহজং নদী পারাপারের সময় সাইফুল ইসলাম নামের এক আনসার সদস্য নিখোঁজের ৩৩ ঘন্টা পর তার মরদেহ উদ্ধার করেছে ডুবুরি দলের সদস্যরা। সোমবার (২৩অক্টোবর) বেলা ১টার দিকে কুমুদিনী হাসপাতালের আনসার ব্যারাকের পূর্ব পাশ থেকে ওই আনসারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরআগে গত রোববার (২২অক্টোবর) ভোর ৪টায় ওই আনসার সদস্য ডিউটি শেষে রণদা নাট মন্দির থেকে কুমুদিনীতে যাওয়ার উদ্দেশে নদী পারাপারের সময় নৌকার রশি টানতে গিয়ে হাত ফসকে সে নদীতে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হয়।

নিখোঁজের পর সকাল থেকেই তাকে খুঁজতে অভিযান চালায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। দিনব্যাপী অভিযান করে আনসারের কোনো খোঁজ না পাওয়ায় রোববার সন্ধ্যার আগ মুহূর্তে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়। পরদিন সোমবার সকালে আবারও উদ্ধার অভিযান শুরু করা হয়। পরে বেলা ১টার দিকে নদী থেকে ওই আনসারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের লিডার আমজাদ হোসেন বলেন, কুমুদিনীর আনসার ব্যারাকের পূর্ব পাশে নদীর তলদেশ থেকে ওই আনসারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর মরদেহ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মির্জাপুর থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, মরদেহটি উদ্ধারের পর পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তার পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।
ওই আনসার নরসিংদী জেলার মনহরদী উপজেলার ডুমুরপাড়া গ্রামের মো. হেলাল উদ্দিনের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম(২৮)।