দিনাজপুরের বিরামপুরে জামায়াত শিবিরের ১৬ নেতাকর্মীকে আটক করেছে থানা পুলিশ। শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বাদ জুম্মা পৌর শহরের পূর্বপাড়া জামে মসজিদ এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। নামাজ শেষে তারা মিছিল বের করে মহাসড়কে নাশকতার চেষ্টা করছিল বলে দাবি পুলিশের।

আটককৃতরা হলেন, বিরামপুর উপজেলার জোতমাধব এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে জামিল হোসেন(৩৫), চিরিরপাড়-বুজুরুক এলাকার কফিল উদ্দিন মন্ডলের ছেলে আব্দুল মান্নান (৬৫),শ্যামনগর এলাকার আমিরুল্লাহ এর ছেলে মোজাফ্ফর রহমান (৭৩), খিয়ার-মাহমুদপুর এলাকার কাইমুদ্দিনের ছেলে নুরুজ্জামান (৪০), মাধুপুর এলাকার তয়েজ উদ্দিনের ছেলে ওমর ফারুক (৩২), মুকুন্দপুর এলাকার আব্দুল হকের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৪০), একই এলাকার মহব্বতুল্লাহের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৫৫), বুজরুগঙ্গা এলাকার আবু তালেবের ছেলে আক্কাস আলী (৩২), পূর্বজগন্নাথপুর এলাকার ছয়মুদ্দিনের ছেলে সামসুদ্দিন আহম্মেদ (৫৫), কলেজপাড়া এলাকার তাছের উদ্দিন মন্ডলের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৫৫), টাটকপুর এলাকার মতিনের ছেলে সাজ্জাদুর রহমান (৩২), চাঁদপুর এলাকার দরবেশ মিয়ার ছেলে তোতামিয়া (৬৭)।

বাকি চারজন হলেন, নবাবগঞ্জ উপজেলার ফুলবান্দা এলাকার শওকত আলীর ছেলে নাঈম ইসলাম (১৮),পার্বতীপুর উপজেলার লালবিলাস এলাকার আব্দুল গফুরের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৭), তাজনগর কাজীপাড়া এলাকার মনজের আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান(১৮), ফুলবাড়ী উপজেলার হরিপুর এলাকার ইব্রাহীম আলীর ছেলে ইসমাঈল হোসেন (৩২)।

পুলিশ জানায়, জুম্মার নামাজ শেষে বিরামপুর পৌর শহরের পূর্বপাড়া মসজিদ থেকে জামায়াত শিবিরের ৮০ থেকে ১০০ জন নেতাকর্মী একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে উঠলে সড়কে যানজট সৃষ্টি হয়। মহাসড়কটিতে নেতাকর্মীরা নাশকতার চেষ্টা করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গেলে সকলে এদিক সেদিক ছোটাছুটি করে। ঘটনাস্থল থেকে ১৬ জনকে আটক করে পুলিশ।

বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বলেন, আটক সকলেই জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী। নাশকতা চেষ্টার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করার প্রক্রিয়া চলমান আছে। শনিবার তাদেরকে দিনাজপুরের আদালতে পাঠানো হবে।

বার্তা বাজার/জে আই