আগামী ৩০ আগস্ট থেকে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায় যৌথভাবে এশিয়া কাপের আসর বসতে যাচ্ছে। এশিয়ান দেশগুলোর এই শ্রেষ্ঠত্বের মঞ্চে লড়তে প্রস্তুত বাংলাদেশ। এ নিয়ে সপ্তাহ দুয়েক টাইগার ক্রিকেটারদের অনুশীলন ক্যাম্পও চলেছে। এবার সেসব প্রস্তুতির ফলাফল মাঠে দেখানোর পালা। আসন্ন এশিয়া কাপের জন্য শ্রীলঙ্কায় উড়াল দেওয়ার আগে প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন টাইগার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহ এবং অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এ সময় সাকিব বলেন, ‘এশিয়া কাপে আমাদের প্রথম ম্যাচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ওখানে যেটা দেখেছি এবং অতীত রেকর্ড যা বলছে, ব্যাটসম্যানরা ভালো রান পায়। এবারও তেমন কিছুই হবে। এজন্য বেশ চ্যালেঞ্জ থাকবে বোলারদের সামনে। তবে আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যদিও ছিলাম না, কোচদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি, দলের প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে। আমরা সবদিক থেকে প্রস্তুত আছি। এশিয়া কাপে আমরা আগে ভালো খেলেছি। এবারও ভালো খেলতে চাই। এজন্য আমাদেরকে আগে সুপার ফোরে কোয়ালিফাই করতে হবে। প্রথম দুটি ম্যাচ আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চাই। সুযোগ থাকলে প্রতিটি ম্যাচ জেতার চেষ্টা করবো।’

এর আগে শিষ্যদের প্রস্তুতি নিয়ে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘প্রস্ততিতে আমি খুবই সন্তুষ্ট। আমরা শুরুতে ফিটনেস নিয়ে বেশ কাজ করেছি। পরবর্তী সাতদিন আমরা কাজ করেছি তাদের স্কিল নিয়ে। যেখানে টেকনিক্যাল বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করা হয়েছে। এরপর পাঁচদিন ছিল তাদের প্রস্তুত করার লড়াই।’

প্রস্তুতি ভালো হয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশ কোচ আরও বলেন, ‘আমরা অনুশীলনে প্রথমবারের মতো বেশ কিছু বিষয় নিয়ে কাজ করেছি, যেগুলো গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা একটা প্রস্তুতি ম্যাওচ খেলেছি। যেখানে ছেলেরা শেষ বল পর্যন্ত নিজেদের ইনটেনসিটি দেখিয়েছে।’

আগামী ৩০ আগস্ট এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান-নেপাল। এর পরদিন (৩১ আগস্ট) নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নামবে বাংলাদেশ। সবার আগেই টাইগারদের এই ম্যাচের টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। টুর্নামেন্টের গ্রুপ ‌‘এ’-তে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান এবং নেপাল। গ্রুপ ‘বি’-তে বাংলাদেশ লড়বে আফগানিস্তান এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। প্রথম রাউন্ডে সাকিবের দলের দ্বিতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ৩ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

হাইব্রিড মডেল অনুসারে এবারের আসরের মোট ৪টি ম্যাচ আয়োজন করবে পাকিস্তান। আর বাকি ৯টি ম্যাচের আয়োজক শ্রীলঙ্কা। টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৭ সেপ্টেম্বর। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে শ্রীলঙ্কার কলম্বোয়।

বার্তা বাজার/জে আই