১৯, অক্টোবর, ২০১৮, শুক্রবার | | ৮ সফর ১৪৪০

আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে তারেক রহমানের শোক প্রকাশ

‘এই রূপালী গিটার ফেলে একদিন চলে যাব দূরে, বহুদূরে সেদিন অশ্রু তুমি রেখো গোপন করে’’ শিল্পী তার কথা মতো চলে গেছেন। রূপালী গিটার তার হাতে আর কোনো দিন খেলা করবে না। ভক্তদের অন্তরে আঘাত করবে না ‘ছয় তারের’ ঝংকার। রূপালী গিটারে হাত পড়বে না জাদুকরের। বাংলা সংগীতাঙ্গনের কিংবদন্তি, জনপ্রিয় ব্যান্ডদল এলআরবি’র লিড গিটারিস্ট ও ভোকাল আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমান। এক শোকবার্তায় বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেন, “এদেশের সঙ্গীত জগতে আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন এক উজ্জল জ্যৈতিস্ক। একজন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী হিসেবে আইয়ুব বাচ্চু’র গাওয়া গান এদেশের তরুণ ছেলে-মেয়েদের যেভাবে উদ্বেলিত করতো তা অতুলনীয়। তার গান তাকে গণমানুষের নিকটজন করে তুলেছিল। তাঁর মৃত্যু সঙ্গীতপ্রিয় মানুষদের জন্য অত্যন্ত মর্মস্পর্শী ও বেদনার। তাঁর মৃত্যুতে দেশ হারালো অসাধারণ একজন গুনী শিল্পীকে যার অভাব সহজে পূরণ হবার নয়। সংগীত শিল্পী হিসেবে তাঁর অবদান জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে।” বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শোকবার্তায় কন্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু এর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারের সদস্য, গুনগ্রাহী, অসংখ্য ভক্ত ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহমর্মিতা জানান। অপর এক শোকবার্তায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কন্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করে বলেন, “আইয়ুব বাচ্চু গানের জগতে ছিলেন একজন কিংবদন্তি। এই প্রতিভাবান শিল্পীর মঞ্চে উপস্থাপিত গানে তরুণদের মধ্যে সৃষ্টি হতো উন্মাদনা। সংগীতপ্রেমী মানুষের মাঝে তিনি ছিলেন বিপুল জনপ্রিয়। আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন গণমানুষের শিল্পী। তার গানের সুরমূর্ছনা সঙ্গীতপ্রেমীদের আবেগাপ্লুত করতো। তার গানের আবেদন তাকে চিরস্মরণীয় করে রাখবে। তাঁর মৃত্যুতে দেশ একজন বহুমূখী প্রতিভার কন্ঠশিল্পীকে হারালো। আইয়ুব বাচ্চু’র অকাল মৃত্যুতে আমি খুবই বেদনাহত। আমি তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যবর্গ, গুনগ্রাহী, ভক্ত-অনুরাগী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।”