১৬, জানুয়ারী, ২০১৯, বুধবার | | ৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

প্রথম দিনের অনুশীলনেই থাকবেন ‘এমপি’ মাশরাফি!

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৯

প্রথম দিনের অনুশীলনেই থাকবেন ‘এমপি’ মাশরাফি!

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের ঠিক আগে তার সংসদ নির্বাচনে দাঁড়ানো নিয়ে উঠেছিল অনেক কথা। ক্রিকেটার ও অধিনায়ক মাশরাফি এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ সিরিজের আগে জড়িয়ে পড়লেন রাজনীতিতে এবং দাঁড়ালেন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। এমতাবস্থায় ক্রিকেট মাঠে তার মনোযোগ বা আত্মনিবেদন কি থাকবে আগের মতোই? নাকি ঘটবে নিজের ট্র্যাক থেকে বিচ্যুতি?

এমন অনেক প্রশ্ন ও গুঞ্জন যখন ডালপালা মেলতে শুরু করেছিল, তখন স্ব-উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে মাশরাফি জানিয়ে দিয়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজটাও তার কাছে অন্য আট-দশটা সিরিজের মতোই গুরুত্বপূর্ণ। সিরিজ শেষ হওয়ার আগে অন্য কোনো দিকে মনোযোগ সরার কোনো সুযোগই নেই।

এর পাশাপাশি সিরিজ চলাকালীন সংবাদমাধ্যমকে রাজনীতি তথা সংসদ নির্বাচন বিষয়ক কোনো কথা না তোলারও অনুরোধ করেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক। পরে যেমনটা বলেছিলেন সিরিজের আগে, ঠিক তেমনটাই করেছেন সিরিজ চলাকালীন।

খেলেছেন সবসময়ের মতোই নিজের পুরোটা উজার করে, সিরিজ জিতিয়েছেন দলকে, বল হাতে শিকার করেছিলেন সিরিজ সর্বোচ্চ ৬ উইকেট, প্রথম ম্যাচে জিতেছিলেন ম্যাচ সেরার পুরষ্কার। এ সময়টায় নির্বাচন বিষয়ক কোনো প্রশ্ন না করায় সিরিজ শেষে সংবাদ মাধ্যমকে ধন্যবাদ দিতেও ভোলেননি বর্তমানে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি।

ডিসেম্বরের ১৪ তারিখ সিলেটে সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলে ফিরেছেন ঢাকায়। পায়ে ইনজুরি থাকায় কিছু দিন বিশ্রাম নিয়ে ২৩ তারিখ গিয়েছেন নড়াইল। মাত্র ৫ দিনের মতো সময় হাতে নিয়ে গেলেও এ বাড়ি, ও বাড়ি ঘুরে জনসংযোগ করতে কোনো কমতি রাখেননি মাশরাফি।

পরে স্বাভাবিকভাবেই বিপুল ব্যবধানের জয়ে পড়েছেন বিজয়ীর মালা এবং বছরের প্রথম দিনই ফিরে এসেছেন রাজধানী ঢাকায়। না ফিরেই বা উপায় কি! ডাক এসেছে যে ক্রিকেটের। আর মাত্র ৭২ ঘণ্টা পরেই শুরু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠ আসর। বিপিএলের এ আসরে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়কত্ব রয়েছে তার কাঁধে, দায়িত্ব শিরোপা ধরে রাখার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের আগেও ছিলেন আত্মপ্রত্যয়ী, মাঠে আত্মনিবেদনটাও ছিলো প্রচুর। বল হাতে শিকার করেছিলেন সিরিজ সর্বোচ্চ ৬ উইকেট। সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পরেও মাঠে ফেরার তাড়াটা ঠিক আগের মতোই। তাই ৫ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া বিপিএলের তিন দিন আগেই মাঠে ফিরতে উদগ্রীব মাশরাফি।

যে কারণে ৩০ তারিখ নির্বাচনের পর বাড়ি থেকেছেন কেবল ৩১ তারিখ। বছরের প্রথম দিন অর্থাৎ ১ জানুয়ারি দ্বিপ্রহরে ফিরে এসেছেন ঢাকায়। উদ্দেশ্য একটাই, বিপিএল শুরুর আগেই নিজের ফিটনেস ফিরে পাওয়া এবং যথাযথ অনুশীলনের সময় পাওয়া।

২ জানুয়ারি তথা বুধবার থেকে শুরু হবে বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল রংপুরের অনুশীলন। নড়াইল থেকে ঢাকায় ফেরার পথে মাশরাফি তার ঘনিষ্ঠজনদের জানিয়েছেন দলের প্রথম দিনের অনুশীলনেই থাকার ইচ্ছে তার। সেখানে নিজের ফিটনেস ও স্কিল নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি দলের দেশী-বিদেশী খেলোয়াড়দের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপনের কাজটিও সেরে ফেলতে হবে আগেভাগেই।

কেননা এবার প্রথমবারের মতো বিপিএল খেলতে আসবেন দক্ষিণ আফ্রিকান মহাতারকা এবি ডি ভিলিয়ার্স। ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান টি-টোয়েন্টি সম্রাট ক্রিস গেইলের পাশাপাশি এ প্রোটিয়া সেনাপতিকেও যে সামাল দিতে হবে মাশরাফিকে। আর এ কাজের জন্য তার হাতে রয়েছে মাত্র ৭২ ঘণ্টার মতো সময়।

বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের প্রথম দুই দিনই মাঠে নামতে হবে মাশরাফির রংপুরকে। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে চট্টগ্রাম ভাইকিংসের মুখোমুখি হবে রংপুর রাইডার্স। পরদিনই আবার খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে নামতে হবে মাশরাফি-গেইলদের। এ কারণেই হয়তো মাঠে ফেরার তাড়াটা একটু বেশিই মাশরাফির।