১৬, জানুয়ারী, ২০১৯, বুধবার | | ৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

ছাত্রলীগ ও এলাকাবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ১৫

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৯

ছাত্রলীগ ও এলাকাবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ১৫

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার’র মহেষখালীতে নারী সংক্রান্ত বিষয়ের জের ধরে এলাকাবাসীর ও স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এঘটনায় উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন নারী পুরুষ আহত হয়েছেন।পুলিশ ও বিজিবি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।

মঙ্গলবার (১জানুয়ারি) রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টা নাগাদ উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের হরিয়ার ছড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে।স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে,নারী সংক্রান্ত বিষয়ে হোয়ানক ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা সাকলাইন ইসলাম উরফে নিরুর সাথে হরিয়ার ছড়া এলাকার মৃত আবু শামার পুত্র আবুল কাশেমের বাকবিতন্ডা হয়।এই ঘটনার জের ধরে নিরুর অনুসারী ৩৫/৪০ জন মিলে হারিয়ার ছড়া থেকে সন্ত্রাসী কায়দায় আবুল কাশেম কে তুলে আনতে গিয়ে হামলা চালিয়ে আবুল কাসেমের মা শামসুন্নাহার ও বোন মিহিন সহ ৩জন প্রতিবেশীকে আহত করে।এতে বিক্ষুব্ধ এলাকার লোকজনের ধাওয়ার মুখে অন্তত ১০ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সূত্রটি।

এদিকে সন্ত্রাসী হামলায় সংবাদ পেয়ে হোয়ানক ফাঁড়ি’র পুলিশ ও অস্থায়ী ক্যাম্পে অবস্থানরত বিজিবি জওয়ানরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।আহতদের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ৭জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিয়ে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর ‘বার্তা বাজার’ কে জানান, তিনি ঘটনা সম্পর্কে অবগত হয়েছেন।তবে ঘটনার মূল উৎস কি সেটা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না।সর্বশেষ রাত ১২টার পরে রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ পুলিশের হাতে আসেনি।তিনি আরো জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে পুলিশ দোষীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করবে।