ফিলিপাইনে ডেঙ্গু আক্রান্ত আড়াই লাখ, নিহত ১০২১ জন

ভয়াবহ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ফিলিপাইনে কমপক্ষে ১০২১ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে তিন ভাগের এক ভাগেরও বেশি শিশু। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে আড়াই লাখ মানুষ।। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে চীনা সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া।

দেশটির স্বাস্থ্য বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি রোনালদো এনরিক ডোমিনগো বলেন, ‘চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে মৃতের সংখ্যা ১০২১। এটি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ৬২২ জন।’

তিনি বলেন, ‘মারা যাওয়া ১০২১ জনের মধ্যে ৪০ শতাংশই হচ্ছে শিশু, যাদের বয়স ৫ থেকে ৯ বছরের মধ্যে।’ স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাব মতে, চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৩২। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ১ লাখ ১৯ হাজার ২২৪।

এর আগে গত ৬ আগস্ট ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবকে জাতীয় মহামারী হিসেবে ঘোষণা করে ফিলিপাইন। এর আগে গত জুলাইতে ‘জাতীয় ডেঙ্গু সতর্কতা’ জারি করেছিল দেশটি। আগস্টে মহামারীর ঘোষণা দেয়া হয়েছিল।

এমন অবস্থায় জনসচেতনতার ওপর জোর দেন রোনালদো এনরিক ডোমিঙ্গো। তিনি বলেন, জনগণকে অধিক সক্রিয়া হতে হবে এই রোগের বিস্তার রোধে। যেসব স্থানে ডেঙ্গু রোগের জন্য দায়ী এডিস মশার বংশবিস্তার করে সেগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করার ওপর জোর দেন তিনি।

উল্লেখ্য, ফিলিপাইনে প্রতি তিন-চার বছর পর পর ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। দেশটিতে সর্বশেষ প্রাদুর্ভাব দেখা গিয়েছিলো ২০১৬ সালে। এবার মিমারোপা, ওয়েস্টার্ন ভিসায়াস, সেন্ট্রাল ভিসায়াস ও নর্দার্ন মিন্দানাও-এর মতো অঞ্চলগুলোতে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেশি। এসব এলাকায় ২ কোটিরও বেশি মানুষের বসবাস, যা দেশটির মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ।

বার্তাবাজার/এএস

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর