মিথ্যা সম্পত্তি দখলের অভিযোগ আনার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

রাজনৈতিক ভাবে হেয়প্রতিপন্ন করতে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে মিথ্যা সম্পত্তি দখলের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ অভিযোগ করেন, উপজেলার কোটাবাড়ী গ্রামের শেখ মশিয়ার রহমানের স্ত্রী শাহিনা খাতুন।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, কলারঝয়া উপজেলার শুভংকরকাটি মৌজায় ৩৪০ দাগ আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করে আসছিলাম। গত ২০১৮ সালের দিকে প্রতিবেশী শেখ জাকির হোসেনের সাথে সীমানা নিধার্রণ নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়।

এবিষয়ে গত বছর বর্তমান কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টুর অফিসে উভয়পক্ষের উপস্থিতিতে এক শালিসী বৈঠক হয়। সে সময় বিষয়টির সমাধানও করে দেন উপজেলা চেয়ারম্যান। সেখানে বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধানের পর আমরা আমাদের প্রতিপক্ষের স্ত্রী রাজিয়ার ভাই মাদকাসক্ত আব্দুল লতিফের কাছে ১২ হাজার টাকাও দেই।

তিনি বলেন, গত ৩১ আগষ্ট সন্ধ্যায় জাকির, তার স্ত্রী রাজিয়া ও তাদের তিন পুত্র আকস্মিকভাবে আমাদের বাড়িতে গোবর, ইটপাটকেল মারতে থাকে এবং আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসা বোনের কন্যাসহ কয়েকজনকে মারপিটে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে তাদের কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরদিন আমরা কলারোয়ায় গিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শাহাজাদার কাছে গেলে তিনি আমাদের সাথে নিয়ে কলারোয়া থানায় যান এবং থানায় একটি অভিযোগ দিতে বলেন। এছাড়া এবিষয় তিনি আর কিছুই জানে না।

অথচ গত ৩ সেপ্টেম্বর রাজিয়া খাতুন তার মাদকাসক্ত ভাই আব্দুল লতিফের কু-পরামার্শ ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট করার জন্য একটি মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। এখবর প্রকাশিত হওয়ায় আমরা হতবাগ হয়েছি। কারণ আমাদের মারপিট করলো আবার আমাদের বিরুদ্ধে উল্টো মারপিটের অভিযোগ তুললো।

এছাড়া বুধবার সকালে সাবেক চেয়ারম্যান স্বপনের অফিসে যাওয়ার পথে আমার বোনের কন্যাকে হাত ধরে টানাটানি করে তাকে শ্লীলতাহানিরও চেষ্টা করে।তিনি আরো বলেন, বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদা বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি অত্যান্ত সুনামের সাথে দীর্ঘদিন যুবলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তার এ দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে এধরনের কোন অভিযোগ নেই।

মাদকাসক্ত লতিফ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে রাজনৈতিকভাবে পরাস্ত করতে এবং সামাজিক ভাবে হেয় করতে তার বোনকে দিয়ে মিথ্যা, ভিত্তিহীন সংবাদ সম্মেলন করিয়েছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাছি। একই সাথে তিনি এধরনের মিথ্যা অভিযোগ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদার রাজনৈতিক সুনাম নষ্টকারী লতিফ ও তার বোনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বার্তাবাজার/এম.কে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর