‘তুই’ বলায় চা বিক্রেতাকে কুপিয়ে হত্যা করে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা

‘তুই’ বলায় এক চা বিক্রেতা কিশোরকে কুপিয়ে হত্যা করেছে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।পুলিশ ঘটনার তথ্য নিতে প্রত্যক্ষদর্শী এক কিশোরকে হেফাজতে নিয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বেলা তিনটার দিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের রাজ দিঘির পাড়ে এই ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম নূর ইসলাম (১৪)। সে শেরপুরের শ্রীবর্দী থানার ভায়াডাঙ্গা (ভাগাতা) গ্রামের ফকির আলীর ছেলে।

পুলিশ হেফাজতে থাকা ওই কিশোরের নাম মো. সাজন (১৬)। পুলিশ জানিয়েছে, সাজন ঘটনার সময় নুরুলের সঙ্গে ছিল বলে তারা জানাতে পেরেছে। তার কাছ থেকে হামলার কারণ ও হামলাকারীদের সম্পর্কে তথ্য নেওয়া হচ্ছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানার ওসি মোঃ এজাজ শফী প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, গাজীপুর জেলা শহরের উত্তর রাজদিঘী টাংকিরপাড় এলাকায় জনৈক ফরিদের বাসায় স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ফকির আলী ভাড়া থাকে। ফকির আলী পাখি শিকার করে তা বিক্রি করে এবং তার ছেলে নূর ইসলাম গাজীপুরের জর্জকোর্ট এলাকার একটি চায়ের দোকানে কাজ করে। মঙ্গলবার দুপুরের খাবার খেয়ে বিকেল পৌনে তিনটার দিকে সে বাসার পার্শ্ববর্তী ভাওয়াল রাজদীঘির উত্তর পাড়ে বসে কিশোর বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিল।

সেখানে গল্প করার সময় ধূমপান করাকে কেন্দ্র করে নূর ইসলাম তার চেয়ে বয়সে বড় সাহাপাড়া এলাকার রানা নামের এক বন্ধুকে ‘তুই’ করে বলে শাসালে কয়েক কিশোর উত্তেজিত হয়ে উঠে। এসময় তাদের মাঝে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে আত্মরক্ষার্থে নুর ইসলাম দিঘীর পানিতে ঝাপ দেয়। পরে নূর ইসলামকে পানি থেকে তুলে এনে কয়েক কিশোর ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত নূর ইসলামকে উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বার্তাবাজার/এএস

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর