বাথরুমে যাবার কথা বলে ‘গায়েব বর’

বাসর রাতে নববধূকে রেখে বাথরুমে যাবার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেননি বর। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে বর না আসায় এক সময় লজ্জা ভেঙ্গে পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায় নববধূ। বিষয়টি চাউর হলে এ নিয়ে গোটা উপজেলায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।এ ঘটনায় গায়েব বরের ভাই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

ঘটনাটি ৩০ আগস্ট ঘটেছে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের পূর্ব বাছিরপুর চাক্কাটিলা গ্রামে।

নিখোঁজ বর আব্দুল কাদির শুকুর (২৭) জুড়ী উপজেলার পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের পূর্ব বাছিরপুর চাক্কাটিলা গ্রামের চরু মিয়ার পুত্র। শুকুর স্থানীয় একটি মাদরাসায় শিক্ষকতা করেন।

অন্যদিকে কনে আঁখি আক্তার এর বাড়ি জায়ফরনগর ইউনিয়নের কাটানালারপার গ্রামে।

শুকুরের পরিবারের লোকজন জানায়, শিক্ষক আব্দুল কাদির শুকুর ছয় মাস পূর্বে গোপনে প্রেম করে বিয়ে করেন আঁখি নামের এক মেয়েকে। ঘটনাটি এক সময় পরিবারের সদস্যরা জানলে প্রথমে তারা মেনে না নিলেও শুকুরের জেদের কাছে হার মেনে ৩০ আগস্ট শুক্রবার রাতে কনেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাড়িতে উঠিয়ে আনা হয়। রাত ১২টার পর আঁখিকে বাসর রাতে রেখে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে শুকুর ঘর থেকে বের হয়ে আর ফিরে না আসায় দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর পরিবারের লোকজন বিষয়টি জেনে তাকে খুঁজতে বের হলে বাথরুমের কাছে শুকুরের পায়ের জুতা ও গায়ের গেঞ্জি পাওয়া গেলেও শুকুরকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় শুকুরের বড় ভাই নুর ইসলাম শনিবার জুড়ী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সরদার শনিবার রাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিখোঁজ শুকুরের বড় ভাই এ ব্যাপারে থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। তাকে খুঁজতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

বার্তবাজার/এএস

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর