শেরপুরে নদীতে নিখোঁজ শিশুর লাশ উদ্ধার

বগুড়া শেরপুরের করতোয়া নদীর পানিতে ডুবে নিখোঁজ হওয়া শিশুর লাশ ২৪ ঘন্টা পর গতকাল শুক্রবার দুপুরে উদ্ধার করেছে রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিরা।

জানা গেছে, উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের চন্ডীজান হিন্দুপাড়া গ্রামের ব্রজেন দাসের ছেলে চন্দন দাস মাছ ধরার জন্য তার মেয়ে কিরণ ও ছোটভাই উজ্জল দাসের ছেলে অপূর্ব ওরফে গদাধরকে কাঁধে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জুয়ানপুর ঘাট দিয়ে করতোয়া নদী পার হচ্ছিল। এ সময় নদীর মাঝখানে গেলে তার শিশু মেয়ে কিরণ পানিতে পড়ে যায়। তাকে উদ্ধার করার চেষ্টা করলে ভাতিজা অপূর্ব ওরফে গদাধর পানিতে পড়ে যায়।

পাশে থাকা প্রত্যক্ষদর্শী সঞ্জয় দাস তাদেরকে ডুবে যেতে দেখে চিৎকার দিলে নদীর দু’পাড়ের লোকজন ছুটে এসে নদীর মধ্যে তাদের খুঁজতে থাকার একপর্যায়ে চন্দন ও কিরণের লাশ উদ্ধার করলেও অপূর্ব ওরফে গদাধরের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরে রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিরা গত বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিশুটির লাশ খুঁজে না পাওয়ায় আবারো গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে নদী ডুবে যাওয়ার স্থান থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দক্ষিনে কালিতলা বার্ণির ঘাট এলাকায় কচুরিপানা ভেতর থেকে লাশটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন।

এ প্রসঙ্গে শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার রতন হোসেন, ডুবে যাওয়া শিশুর লাশ কস্তুরি পানার সাথে ভেসে আসা ৫ কিলোমিটার দক্ষিনে কালিতলা বার্ণির ঘাট এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বার্তাবাজার/কে.জে.পি

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর