কাশ্মীর ইস্যুতে ফের উত্তপ্ত আফ্রিদি-গোম্ভীর

কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে শহীদ আফ্রিদিকে তোপ দাগলেন ভারতের সাবেক ওপেনার গৌতম গম্ভীর। পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার ‘কাশ্মীরি ভাইদের প্রতি সংহতি জানাতে’ ভারত-পাকিস্তানের সীমান্তরেখা লাইন অব কন্ট্রোলে যাওয়ার কথা বলার পর তাঁকে ধুয়ে দিলেন গম্ভীর।

চলতি মাসের শুরুর দিকে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খারিজ করেছে ভারত সরকার। এরপর থেকেই অস্থিরতা এবং উত্তেজনা ওই অঞ্চলে। মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি অচল রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও। কাশ্মীরের এ সংকট নিরসনে শুরু থেকেই সোচ্চার ছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। তিনি কাশ্মীর নিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কার্যকলাপকে ‘বর্বরোচিত’ বলছিলেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এর আগে ঘোষণা করেন, কাশ্মীরের জনসাধারণের প্রতি সংহতি ও সমর্থন প্রকাশে তার দেশে সপ্তাহে একবার করে আধ ঘণ্টার একটি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে।

ইমরান এ ঘোষণা দেওয়ার পর তাকে সমর্থন জানিয়ে আফ্রিদি টুইট করেন, ‘জাতি হিসেবে চলুন প্রধানমন্ত্রীর কাশ্মীর আওয়ার এর দাবিতে সাড়া দিই। শুক্রবার দুপুর ১২টায় আমি মাজার- ই- কায়েদে (পাকিস্তানের জনক মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর সমাধি) থাকব। কাশ্মীরি ভাইদের প্রতি সমর্থন জানাতে আমার সঙ্গে যোগ দিন। ৬ সেপ্টেম্বর আমি একজন শহীদের বাসায়ও যাব। আর শিগগিরই যাব ‘এলওসি’তে (লাইন অব কন্ট্রোল)।’

আফ্রিদির সঙ্গে গম্ভীরের সম্পর্কটা এমনিতেই বেশ উত্তপ্ত। খেলোয়াড়ি জীবন থেকেই আফ্রিদি উত্তরে তো গম্ভীর দক্ষিণে। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়কের টুইট আর তার একটি ছবি নিজের টুইটে জুড়ে গম্ভীর লেখেন, ‘(আফ্রিদির) এ ছবিতে শহীদ আফ্রিদি শহীদ আফ্রিদিকে জিজ্ঞেস করছে শহীদ আফ্রিদিকে লজ্জা দিতে এরপর শহীদ আফ্রিদির আর কি করা উচিত? আর তাতে সব সন্দেহ দূর করে এটাও প্রমাণ হয়ে যায় যে শহীদ আফ্রিদি পরিণত হতে চায় না!!! শহীদ আফ্রিদিকে সাহায্য করতে আমি অনলাইন কিন্ডারগার্টেন টিউটোরিয়াল অর্ডার করছি।’

শুধু আফ্রিদি নন পাকিস্তানের আরেক সাবেক অধিনায়ক জাভেদ মিঁয়াদাদও এর আগে লাইন অব কন্ট্রোল-এ যাওয়ার কথা বলেছেন। সেখানে শান্তির পতাকা ওড়াতে চান মিঁয়াদাদ। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ মুষ্টিযোদ্ধা আমির খান এর আগে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সহায়তায় সেখানে গিয়ে জনসাধারণের সঙ্গে কথা বলেছেন।

বার্তাবাজার/এএস

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর