১৫, ডিসেম্বর, ২০১৮, শনিবার | | ৬ রবিউস সানি ১৪৪০

বর্ণবাদ আইন পাস না হওয়ায় মালয়েশিয়ায় আনন্দ মিছিল

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৮

বর্ণবাদ আইন পাস না হওয়ায় মালয়েশিয়ায় আনন্দ মিছিল

বর্ণবাদ আইন পাস না হওয়ায় আনন্দ মিছিল করেছে মালয়েশিয়ার জনগণ। শনিবার (৮ ডিসেম্বর) হাজার হাজার মালয় মুসলমানরা কুয়ালালামপুরের রাস্তায় আনন্দ মিছিল করে।

আনন্দ মিছিলে যোগ দেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকও। বর্ণবৈষম্য নিরসনে জাতিসংঘের গৃহীত প্রস্তাব আইন হিসেবে পাস হলে সংখ্যাগরিষ্ঠ মালয় জনগোষ্ঠী এবং ইসলাম ধর্মের একক প্রভাব ক্ষুণ্ন হবে বলে আশঙ্কা করছিলেন আন্দোলনকারীরা। ফলে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ প্রস্তাবটি আইনে পরিণত করতে অসম্মতি জানান।

কয়েক সপ্তাহ ধরেই বেশ কয়েকটি সংগঠন আইনটি পাসে মাহাথির সরকারের ওপর চাপ দিয়ে আসছিল। গত মাসে সরকার জানিয়ে দেয়, প্রাস্তবটি আইনে পরিণত করা হবে না।

মালয়েশিয়ার মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ মালয়। তারা আশঙ্কা করছিল, প্রস্তাবটি আইনে পরিণত হলে মালয়দের বেশি সুবিধা পাওয়ার পথ বন্ধ হবে। একই সঙ্গে মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলামের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হবে।

এদিকে মিছিলের বিষয়ে মাহাথির এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘ধন্যবাদ জানানোর উদ্দেশেই যদি এ মিছিল আয়োজন করা হয়ে থাকে তাহলে ধন্যবাদ পেয়ে আমরা ধন্য।’

পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, আনন্দ মিছিলে প্রায় ৫০ হাজার মালয় অংশ নেয়।

মিছিলে অংশ নেয়া সাত সন্তানের জননী ফারিদাহ হারুন (৫৯) জানান, ‘মালয় হিসেবে আমাদের অধিকার রক্ষার জন্য এখানে সমবেত হয়েছি। আমরা দীর্ঘদিন ধরে দেশকে ধীরে ধীরে গড়ে তুলেছি। কিন্তু কিছু লোক এসে জবরদখল নিতে চাইছে। তারা মারার মতো সংস্থাকে বন্ধ করে দিতে চায়।’

মারা (মাজলিস আমানাহ রাকিয়াত) একটি সরকারি সংস্থা যা মালয় এবং অন্যান্য আদিবাসীদের ব্যাবসা-বাণিজ্যের বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও সহায়তা দেয়।