১৪, ডিসেম্বর, ২০১৮, শুক্রবার | | ৫ রবিউস সানি ১৪৪০

দুধের উৎপাদন বাড়াতে খামার ও বাজার ব্যাবস্থাপনার উন্নয়ন আবশ্যক

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৮

দুধের উৎপাদন বাড়াতে খামার ও বাজার ব্যাবস্থাপনার উন্নয়ন আবশ্যক

রাফী উল্লাহ, বাকৃবি প্রতিনিধি: দেশে দুধের চাহিদা মেটাতে খামার ব্যবস্থাপনা ও বাজার উন্নয়নের মাধ্যমে এর উৎপাদন ও গুনগতমান বৃদ্ধি করা আবশ্যক। বাংলাদেশে প্রায় ৮ মিলিয়ন টন দুধ উৎপাদিত হয় যা বিশ্বের শতকরা ১ ভাগেরও কম। সেই সাথে উৎপাদিত দুধে গুনগতমান নিশ্চিত করা কঠিন হয়ে পড়েছে। অসাধু ব্যাবসায়ীরা দুধের সাথে পানি মিশিয়ে এবং নকল দুধ তৈরী করে জনগন কে প্রতারিত করছে সেই দুধ চড়া দামে বিক্রি করে। বাংলাদেশের গ্রামীণ কৃষকদের গবাদী পশু পালন কমে যাওয়ার কারণে দুধের উৎপাদন কমে যায়। তাই সরকার, নীতিনির্ধারক, এনজিও, গবেষক এবং খামারিদের মধ্যে সমন্বয় সাধন করে দুগ্ধ সেক্টরের অগ্রগতির মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নিশ্চিত করতে হবে।

শনিবার সকাল ১০ টায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) পশুপালন অনুষদের সম্মেলন কক্ষে ‘ইসটাবিøস্ড অব ইনটিগ্রেটেড ডেয়রি রিসার্চ নেটওয়ার্ক’ শীর্ষক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন। কর্মশালাটির আয়োজন করে ইনটিগ্রেটেড ডেয়রি রিসার্চ নেটওয়ার্ক (আইডিআরএন) টিম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পশুপুষ্টি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. খান মো. সাইফুল ইসলাম সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান, বিশেষ অতিথি হিসেবে পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (আরডিএ) মহাপরিচালক ড. আব্দুল মতিন, প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে পশু পালন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষকবৃন্দ ওই কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পশুপুষ্টি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মহি উদ্দিন।