১৫, ডিসেম্বর, ২০১৮, শনিবার | | ৬ রবিউস সানি ১৪৪০

মিস কল অতঃপর প্রেম ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীকে বাল্যবিয়ে

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৮

মিস কল অতঃপর প্রেম ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীকে বাল্যবিয়ে

নীলফামারী প্রতিনিধি: মিস কল দেয়ার পর ভুল নম্বর অতঃপর প্রেম করে স্ত্রী ও দুই সন্তান গোপন রেখে রোকসানা পারভীন নামে এক জেডিসি পরীক্ষার্থীকে বিয়ে ঘটনায় উপজেলা জুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। আদালতে এফিডেভিট করে নাউতরা ইউনিয়নের নাউতরা গ্রামের জামিনুর রহমান জীবন (২৮) স্ত্রী সতœান থাকার পরও বিয়ে করেন জেডিসি পরীক্ষার্থী রোকসানা পারভীনকে।

রোকসানা পারভীন টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিন খড়িবাড়ী গ্রামের রশিদুল ইসলামের কন্যা ও দক্ষিন খড়িবাড়ী মুন্সিপাড়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে চলতি বছর জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছিল। যাহার রোল- ৪৬১১৮৯। এদিকে স্বামী গোপনে বিয়ের সংবাদ পেয়ে সেখানে হাজির হন জীবনের স্ত্রী সাবরিনা আক্তার রুমা (২৪), প্রতিবন্ধি কন্যা জান্নাতুল আক্তার জেমি (৮) ও ছোট কন্যা মিনহা বেগম (১)। ২০০৮ সালের নাউতরার রমজান আলীর পুত্র জামিনুর রহমান জীবনের সাথে পাশ্ববর্তী ডোমার উপজেলার মেলা পাঙ্গা গ্রামের ইউপি সদস্য আব্দুল কাদেরের কন্যা সাবরিনা আক্তার রুমার বিয়ে হয়।

রুমা বলেন, বিয়ের পর সংসার ভালই চলছিল। গত ৮মাস থেকে আমাদের সংসারে বিভিন্ন ভাবে অশান্তি চলে আসছিল। আমার স্বামী জীবন লম্পট চরিত্রের। জয়পুরহাট জেলার সদরের ১ম স্ত্রী শোভা বেগম থাকার পর আমার সাথে মোবাইলে সম্পর্ক করে তোলেন। বিয়ের আগে ১ম স্ত্রীকে তালাক দিয়ে আমাকে বিয়ে করেন। বিয়ের ১০ বছর আমারও মিস কল দিয়ে প্রেম করে গোপনে রোকসানাকে বিয়ে করেন। বিয়ের বিষয়ে প্রতিবন্ধী বাচ্চাকে নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, থানা, আদালতে বিচার প্রার্থনা করে আসছি।

এ ব্যাপারে রোকসানা পারভীন বলেন, ৬মাস আগে একদিন ফোনে মিসকল আসল রিং দিলাম বলল রং নাম্বার আপনার বাড়ী কোথায় কি করেন। এভাবে ৬মাস প্রেমের পর গত ২৫ অক্টোবর নীলফামারীর আদালতে গিয়ে এফিডেভিট করে জীবনকে বিয়ে করি। বিয়ের পর আমি জেডিসি পরীক্ষা দেই। জানতাম না জীবন বিবাহিত আকস্মিকভাবে জীবনের স্ত্রী ও দুই কন্যাসহ আমাদের বাড়ীতে আসে। সকলে হতবাক এটা কি করে সম্ভব স্ত্রী সন্তান থাকার পরও মিসকলে প্রেম করে প্রতারক আমাকে বিয়ে করল। জামিনুর রহমান জীবন বলেন, আমি তো আদালতে মাধ্যমে বিয়ে করেছি প্রতারনা করিনি। তাছারা ১ম স্ত্রী ৮মাস থেকে বাপের বাড়ীতে থাকে। ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুন নাহান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করব।