২৩, অক্টোবর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১২ সফর ১৪৪০

মুক্তি পুড়িয়ে হত্যা: মূল পরিকল্পনাকারী আটক

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮

মুক্তি পুড়িয়ে হত্যা: মূল পরিকল্পনাকারী আটক

পাবনার সাঁথিয়ার বহুল আলোচিত নাগডেমরা গ্রামে পূর্ববিরোধের জেরধরে মুক্তিযোদ্ধার কন্যা কলেজছাত্রী মুক্তিকে শরীরে পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা মামলার মূল পরিকল্পনাকারী ওই গ্রামের জাহিদ ডাক্তার ও তার ছেলে জীবনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঘটনার ৩৭ দিন পর বুধবার সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেড়া সাকেল) মিয়া মোহাম্মদ আশিস বিন হাসানের নেতৃত্বে সাঁথিয়া থানা পুলিশ সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়ার রাজমান গ্রামের এক আত্মীয়ের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জাহিদ ডাক্তার (৫৮) ও তার ছেলে জীবনকে (২৮) আটক করে।

সাঁথিয়া থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, জাহিদ ডাক্তার কলেজছাত্রী মুক্তিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় প্রধান পরিকল্পনাকারী। তাকে দীর্ঘদিন ধরে আটকের চেষ্টা করা হচ্ছিল। এ নিয়ে মুক্তি হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ৩২ জন আসামির মধ্যে ২৬ জনকে আটক করল পুলিশ।

নাগডেমরা গ্রামের সালাম গ্রুপ ও মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক গ্রুপের মধ্যে জলাশয় দখলকে কেন্দ্র করে বিরোধের জের ধরে গত ১৯ আগস্ট মুক্তিযোদ্ধা মোজামেল হকের বাড়িতে প্রতিপক্ষ হামলা চালিয়ে তার মেয়ে কলেজছাত্রী মুক্তির গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ৯ দিন পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ আগস্ট রাতে মুক্তি মারা যান।