২০, নভেম্বর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

রাজস্ব ঘাটতি পূরণে শত্রু সম্পত্তি বিক্রি করছে ভারত

আপডেট: নভেম্বর ১০, ২০১৮

রাজস্ব ঘাটতি পূরণে শত্রু সম্পত্তি বিক্রি করছে ভারত

ভারত-পাকিস্তানের ভাগ হয়ে যাওয়া ও যুদ্ধের কারণে যারা পাকিস্তানে চলে গিয়েছেন, তাদের কাছ থেকে জব্দ করা কোটি কোটি ডলারের সম্পদ বিক্রি করতে যাচ্ছে ভারত সরকার।

দেশটির রাজস্ব ঘাটতি পূরণের জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

তিন কোটি ডলারের এ সম্পদকে ভারতে শত্রু সম্পত্তি হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে। চীন ও পাকিস্তানে চলে যাওয়া ভারতীয়রা একসময় এসব সম্পত্তির মালিক ছিলেন। এ দুটি দেশের সঙ্গে ভারতের যুদ্ধ হয়েছিল।

দেশত্যাগ করা এসব মানুষ একসময় দুদেশের নাগরিক ছিলেন। তাদের শত্রু হিসেবে বিবেচনা করে ভারত সরকার তাদের ভূমিসহ বাড়িঘর জব্দ করে নিয়ে তা শত্রু সম্পত্তি জিম্মাদারের হাতে ন্যস্ত করে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার ১৯৬৪ সালের শত্রু সম্পত্তি আইনের ধারাগুলো আরো কঠিন করেছে। এমনকি আইনগত উত্তরাধিকার, যারা এখনো ভারতের নাগরিক, তাদেরও এ আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।

দেশটির মন্ত্রিসভা বৃহস্পতিবার ২০ হাজার তিনশ ২৩ জন অংশীজনের ৯৯৬টি কোম্পানি বিক্রির একটি পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে। এসব কোম্পানিকে শত্রু সম্পত্তি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

ভারত সরকার জানায়, এসব কোম্পানির মধ্যে ৫৮৮টি কোম্পানি এখনো সক্রিয়। এমনকি এর মধ্যে ১৩৯টি কোম্পানি শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত।

ভারত সরকার জানায়, কয়েক দশক নিষ্ক্রিয় থাকার পর শত্রু সম্পত্তি আইন-১৯৬৮ কার্যকর হতে যাচ্ছে। এতে শত্রুদের সম্পত্তি মুদ্রায় রূপান্তরিত সম্ভব হবে।

পাকিস্তান সরকারও এসময় একই ধরনের একটি আইন কার্যকর করেছে।