পীরগঞ্জে ২ শিশুসহ সপরিবারে জেল-হাজত খেটেও ঠাঁই মিলছেনা বাড়িতে, লুটপাটের অভিযোগ

পীরগঞ্জে ৮ মাসের শিশুপুত্র ও ৪ বছরের শিশুকন্যাসহ সপরিবারে ২মাস ৪দিন জেল-হাজত খেটেও ঠাঁই মিলছেনা নিজ বাড়িতে। প্রতিপক্ষের হুমকী ধামকীতে অন্য গ্রামে অন্যের বাড়িতে ৫ সদস্যের এ পরিবারটি মানবেতর জীবন যাপন করছে।

শুধু তাই নয়, জেল-হাজতে থাকাকালীন সময়ে ওই পরিবারের ঘর-বাড়িতে হামলা চালিয়ে ২টি গাব গাভী, অটোরিকশা ২টি, মোটর পাম্প ১টি, নগদ অর্থ, জমি-জমার দলিলপত্রাদীসহ ঘরের আসবাবপত্র লুটপাট করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার টুকুরিয়া ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে।

অভিযোগ ও গ্রামবাসীরা জানায়, কাশিপুর গ্রামের মৃত মোফাজ্জল হোসেনের দু’সহোদর পুত্র বাদশা মিয়া (৫২) ও নুরুজ্জামান মিয়া নুরু (৪০) এর ১৮ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন দিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এরই সুত্র ধরে গত ২৪ সেপ্টেম্বর বাদশা মিয়া ও নুরুজ্জামান মিয়ার লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে বাদশা মিয়ার পুত্র তরিকুল ইসলাম (২৪) নুরুজ্জামানের পুত্র রোমান মিয়া (১৬) এর মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করলে মাথা ফেটে যায়। রোমানকে তাৎক্ষণিক আহত অবস্থায় পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়।

এদিকে ক্ষিপ্ত নুরুজ্জামান মিয়া ও তার লোকজন বাদশা মিয়াকে ধাওয়া দিলে তারা নিজ ঘরে আশ্রয় নেয় এবং ভিতর দরজার খিল লাগিয়ে দেয়।

ক্ষিপ্ত লোকজন জানালা ও দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করলে কে বা কারা ৯৯৯ এ ফোন দেয়। সন্ধ্যায় পুলিশ এসে নিরাপত্তা দেয়ার কথা বলে ঘর থেকে বাদশা মিয়া তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম (৪৭), ৮ মাসের শিশু পুত্র মোস্তাকিম বিল্লা, ৪ বছরের শিশু কন্যা তাইমা খাতুন ও পুত্র তরিকুল ইসলাম (২৪)কে পুলিশ ভ্যানে করে থানায় নেয়া হয়। পরদিন ২৫ সেপ্টেম্বর নুরুজ্জামান বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাদের জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়।

২ মাস ৪ দিন পর জামিনে ছাড়া পেয়ে গত ২১ নভেম্বর বাদশা মিয়া সপরিবারে নিজ বাড়িতে আসতে চাইলে গ্রামে না ডুকতেই নুরুজ্জামানের ভাড়াটে লোকজন নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের তাড়িয়ে দেয়। ফলে প্রায় ১৫ দিন ধরে মোনাইল গ্রামের তার ভায়রা ভাইয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মন্ডল বলেন, ওরা ভাই ভাই, একাধিকবার গ্রাম্য শালিস হয়েছে- কিন্তু কেউ কাউকে মানেনা।

এ ব্যাপারে বিট পুলিশিং কর্মকর্তা প্রদীপ জানান, লুটপাট কিংবা গ্রামে উঠতে দিচ্ছেনা এমন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে জমি নিয়ে বিরোধের বিষয়টি জানি।

আনজারুল/বার্তাবাজার/জে আই

 

 

 

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর