জমি নিয়ে বিরোধ : মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে মনির উদ্দিন খাঁন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রতিবেশী আবু তাহের ও তার পরিবারকে একের পর এক ভূয়া মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের খাটিঙ্গা বাজারে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

মনির উদ্দিন খাঁন উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের খাটিঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা। ভুক্তভোগী আবু তাহেরও একই গ্রামের বাসিন্দা ও মনিরের প্রতিবেশী। খাটিঙ্গা বাজারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ভুক্তভোগী আবু তাহেরের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন এলাকার সিরাজ খাঁ, আবু তালেব, আবু তাহের চৌধুরী, আবুল ফায়েজ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আবু তাহের ও তার পরিবারের লোকজন সবাই ভালো মানুষ। মনির উদ্দিন খাঁন তাদের বিরুদ্ধে একের পর এক ভুয়া মামলা দিয়ে তাদেরকে হয়রানী করছে।

মানববন্ধন শেষে আবু তাহেরের বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্যে পাঠ করেন আবু তাহের। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গ্রামের মনির উদ্দিন খাঁনের সাথে জমি-জমা নিয়ে আমার বিরোধ আছে। এই বিরোধের জেরে মনির চলতি বছর আমার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা করেন, যা চলমান রয়েছে। মামলা দায়েরের পর মনির আদালতে কোন দলিলপত্র দেখাতে না পারায় আদালত মনিরের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে। এতে ক্ষিপ হয়ে মনির আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করা শুরু করে। একের পর এক কাল্পনিক কাহিনী সাজিয়ে মিথ্যা ফৌজদারী মামলা দায়ের করছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল (বিজয়নগর) আদালতে দায়ের করা এক মামলার তদন্ত হয়। তদন্তে মনিরের এক মামলার ঘটনা সঠিক নয় বলে প্রমানিত হয়।

তিনি বলেন, মনির উদ্দিন নিজে ও তার সহযোগীদের বাদী করে পরপর আমাদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট (বিজয়নগর) আদালতে পাঁচটি মামলা দায়ের করেন। তিনি দাবি করেন পাঁচটি মামলাই ভুয়া, মিথ্যা ও কাল্পনিক ঘটনা দিয়ে সাজানো।

তিনি বলেন, গত ৩ এপ্রিল মনির নিজে বাদী হয়ে আমি (আবু তাহের) আমার বড় ছেলে ও বড় ভাইকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন। এই মামলায় আদালত আমাদেরকে স্থায়ী জামিন দিয়েছে। তিনি মনির ও তার লোকজনের একের পর এক মামলা দিয়ে হয়রানীর ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এসব ঘটনার বিরুদ্ধে বিচার চান।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মনির উদ্দিন খাঁন বলেন, আমি ছোটবেলা থেকেই বাইরে বড় হয়েছি এবং দীর্ঘদিন মালয়েশিয়ায় ছিলাম। আবু তাহের ও তার ভাই আবুল ফায়েজের দখলে ১৩৪ শতক জমি রয়েছে। তারা পৈত্রিক সূত্রে ১০০ শতক ও আমি ৩৪ শতক জমি পাওনা। আমি জমি ফেরত চাওয়ায় বিরোধ শুরু হয়। আমি তাদেরকে কোন হয়রানী করছি না।

বার্তাবাজার/এম আই

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর