‘অনেক বিবাহিত পুরুষের সাথে সম্পর্কে ছিলাম’

কলকাতার অভিনেতা সুজয় প্রসাদ চ্যাটার্জি। অভিনয় ক্যারিয়ারে বেশ কিছু আলোচিত সিনেমা উপহার দিয়েছেন। অভিনেতা ছাড়াও তার অন্য পরিচয় তিনি বাচিক-শিল্পী, জেন্ডার-রাইটস অ্যাক্টিভিস্ট। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সুজয় প্রসাদ তার ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। পাশাপাশি কোনো বিয়ে বাড়িতে তোলা একটি ছবিও শেয়ার করেছেন। আর এ পোস্টে বিয়ে, বন্ধুত্ব ও সম্পর্কের অনুভূতি বিশ্লেষণ করেছেন সুজয়।

সুজয়ের এ পোস্টে নেটিজেনদের অনেকে অংশ নিয়েছেন। প্রশ্ন উঠেছে, আকস্মিভাবে তার এমন উপলদ্ধি কেন? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম তার সাথে যোগাযোগ করে।

এ বিষয়ে সুজয় বলেন ‘মাঝেমাঝে আমার মনে হয়, কোথাও কি অসম্পূর্ণতা রয়ে গেল? আমার তো কোনো দিন এমন সামাজিক স্বীকৃতি, বিয়ে হবে না। তা হলে এটা কি অসম্পূর্ণতা!

এটা একটা অদ্ভুত দ্বৈরথ; তার পর মনে হলো এটা তো একটা সামাজিক অনুষ্ঠান। বন্ধুত্বযাপনের সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই।’

তার অভিনীত ‘বেলাশেষে’ সিনেমা মুক্তির পর অনেক বিয়ের প্রস্তাব এসেছিল সুজয় প্রসাদ চ্যাটার্জির কাছে। একটি মেয়ে তাকে প্রতিনিয়ত মেসেজ করত। আরেকজন ডজনে ডজনে চিরকুট লিখেছিল সুজয়কে। কিন্তু এসব প্রেমের প্রস্তাব কীভাবে সামলেছিলেন সুজয়?

জবাবে এ অভিনেতা বলেন ‘আমি মেয়েটিকে ডেকে বুঝিয়েছিলাম। ও বলেছিল সব মেনে নিয়ে আমার সাথে থাকতে রাজি। আমার উত্তর ছিল, আমি তো রাজি নই। আর পুরুষদের প্রেমটা একটু অন্যরকম হয়। অনেক বিবাহিত পুরুষের সাথে সম্পর্কে ছিলাম। কিন্তু সেসব পুরুষের কোনো অবস্থান ছিল না। তবে আমি কোনো ঘর ভাঙিনি। আসলে বিয়েটা আমার কাছে রূপকথার গল্পের মতো; যা শুনতে শুনতে ঘুমিয়ে পড়া যায়।’

বার্তাবাজার/এম.এম

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর