কালিগঞ্জে অসামাজিক কার্যক্রম বন্ধ মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে অসামাজিক কার্যক্রম বন্ধ এবং এ সংক্রান্ত সংবাদ পত্রিকায় পরিবেশেন করার কারণে দুই সাংবাদিকের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার বিকেল ৪ টায় উপজেলার কুশুলিয়া ইউনিয়নের মহৎপুর হাটখোলায় এই মানববন্ধনের আয়োজন করে এলাকাবাসী। এলাকার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের অংশগ্রহণে মানববন্ধনে শেখ ফিরোজ আহম্মেদের সভাপতিত্বে ও আছানুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন মাহমুদা খাতুন, মোছাঃ নাছরিন সুলতানা, আব্দুর রাজ্জাক, মাহফুজ, মোমিন, ছাত্রলীগ নেতা পাভেল, মজনুর রহমান প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন মহৎপুর গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে আয়ুব আলী হাজাম ও তার স্ত্রী মাজেদা খাতুন বাড়িতে দীর্ঘদিন যাবত দেহব্যবসা ও মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এ কারণে এলাকার উঠতি বয়সের ছেলে মেয়েরা মাদক গ্রহণ ও অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িয়ে পড়ছে।

এসব অনৈতিক কার্যক্রমের বিষয়ে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করায় দৈনিক আজকের সাতক্ষীরা ও আমাদের দেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার সাংবাদিক জি এম মামুন ও দৈনিক সাতঘরিয়া ও আলোকিত সকালের স্টাফ রিপোর্টার আরাফাত আলীর বিরুদ্ধে মিথ্যা হয়রানিমূলক ধর্ষণচেষ্টা মামলা দিয়েছে আয়ুব আলীর স্ত্রী। অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ ও সাংবাদিকদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য প্রশাসনের নিকট আহবান জানান তারা।

এ সময় কুশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ মানববন্ধনস্থলে উপস্থিত হয়ে বক্তাদের সাথে একত্মতা প্রকাশ করে বলেন, এলাকায় শুধু আয়ুব আলী নয় সকল অসামাজিক কার্যক্রম পরিচালনাকারি ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

প্রসঙ্গত, গত দেড় বছর যাবত আয়ুব আলীর বাড়িতে দেহ ব্যবসা চলছে। গত ১৪ নভেম্বর স্থানীয়রা নারীসহ আয়ুব আলীকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পরের দিন সকালে ভুয়া কাবিন নামা দেখিয়ে আয়ুব আলী ও তার কথিত স্ত্রী মর্জিনা খাতুন পুলিশি হেফাজত থেকে মুক্তি পায়।

বিভিন্ন গনমাধ্যমে ওই সংবাদ প্রকাশ করায় দুই সাংবাদিকের নামে কাল্পনিক কাহিনী সাজিয়ে আয়ুব আলী তার স্ত্রী মাজেদা খাতুনকে বাদী করে আদালতে মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টার মামলা দায়ের করে।

সোহাগ/বার্তাবাজার/এইচ এম

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর