কুমিল্লায় চেয়ারম্যানের গাড়িতে গুলি, এমপির বিরুদ্ধে অভিযোগ

কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের গাড়িতে গুলি ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় চেয়ারম্যান অক্ষত থাকলেও তার ৫ জন কর্মী আহত হন। হামলার জন্য কুমিল্লা-৪ (দেবীদ্বার) আসনের সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের অনুসারীদের দায়ী করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান।

সোমবার (৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে দেবীদ্বার পৌরসভার ভিংলাবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ হামলায় আহত চেয়ারম্যানের কর্মী সজীব মিয়াকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, রাতে দেবীদ্বার পৌরসভার আলিয়াবাদ এলাকায় পূজামণ্ডপ পরিদর্শনে যান উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ। তিনি পূজামণ্ডপ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও তার অনুসারীরাও প্রবেশ করেন। একপর্যায়ে পূজামণ্ডপের গাড়িবহরের গাড়ি রাখা নিয়ে দুই নেতার অনুসারীদের মধ্যে ঝামেলা হয়।

তখন পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দেয়। মন্দির থেকে ফেরার পথে ভিংলাবাড়ি এলাকায় আবারও উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও মারামারি হয়। এ সময় পাঁচজন আহত হন। একপর্যায়ে আজাদ গাড়িতে উঠলে তাঁর সরকারি গাড়িতে কয়েকটি গুলি করা হয়। এতে গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। একইসঙ্গে তার ব্যক্তিগত গাড়িও ভাঙচুর করা হয়।

উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সংসদ সদস্যের অনুসারীরা গুলি করে। তারা সরকারি গাড়িতে গুলি করে। আমার গাড়ি ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কমল কৃষ্ণ ধর বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। এই ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

বার্তাবাজার/এম.এম 

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর