করতোয়ায় নৌকাডুবি : ইজারাদার-মাঝিকে দায়ী করে প্রতিবেদন

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার আউলিয়ার ঘাটে নৌকাডুবিতে ৬৯ জন নিহত ও তিনজন নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি। এতে ইজারাদার ও মাঝির অদক্ষতাসহ ৭-৮টি কারণ চিহ্নিত করা হয়েছে।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে এক অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, রোববার প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি। প্রতিবেদনে ইজারাদারের গাফিলতি, অদক্ষ মাঝি, অসচেতনতা, অতিরিক্ত যাত্রী, নৌকায় ত্রুটিসহ ৭-৮টি কারণ চিহ্নিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে একাধিক সুপারিশও তুলে ধরা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকেও তদন্ত করা হয়েছে। তিনটি প্রতিবেদন পাওয়ার পর সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাট এলাকায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৬৯ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। স্বজনদের দেওয়া তালিকা অনুসারে এখনও তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। মৃতদের মধ্যে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার ৪৫ জন, আটোয়ারীর দুজন, ঠাকুরগাঁওয়ের তিনজন, দেবীগঞ্জের ১৮ জন ও পঞ্চগড় সদরের একজন রয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৮ জন পুরুষ, ৩০ জন নারী ও বাকি ২১ জন শিশু।

এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায়কে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। প্রথমে তিনদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা থাকলেও পরে মেয়াদ আরও তিন দিন বাড়ানো হয়।

বার্তাবাজার/জে আই

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর