পতিতাদের দিয়ে দেহ ব্যবসা, মহিপুরে ঘড়মালিকসহ আটক ৪

পটুয়াখালীর মহিপুরে পতিতাদের দিয়ে দেহ ব্যবসা করানোর দায়ে ঘড় মালিক ও পতিতাসহ ৪ জনকে আটক করেছে মহিপুর থানা পুলিশ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোররাতে অভিযান পরিচালনা করে মহিপুরের কাটপট্টি নামক স্থানের বসত ঘড়ের একটি কক্ষ থেকে পতিতাবৃত্তির দায়ে ২ নারীকে আটক করে পুলিশ। এসময় তাদের দেওয়া তথ্য মতে ঘড়মালিক মহিপুর গ্রামের আবুল কালাম ওরফে কালু মাঝি (৪৫) ও তার স্ত্রী ফিরোজা বেগমকেও আটক করা হয়।

জানা গেছে, ঘড়মালিক স্বামী স্ত্রী মিলে দীর্ঘদিন ধরে তাদের ঘড়ের একটি কক্ষে মহিলাদের বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে এবং জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তি করে আসছিলো।

পরে পুলিশ বাদি হয়ে ঐ দুই স্বামী স্ত্রীর বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে এবং আটককৃত ২ নারীর বিরুদ্ধে গণউপদ্রব সৃষ্টি ও পতিতাবৃত্তির অপরাধে মামলা দায়ের করে বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতে প্রেরণ করে।

মহিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খোন্দকার মোঃ আবুল খায়ের বলেন, গ্রেফতারকৃত ঐ স্বামী-স্ত্রী মিলে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন অসহায় মেয়েদের প্রলোভন দেখিয়ে তাদের দিয়ে পতিতাবৃত্তি করে আসছিল কিছু মানুষে সহায়তায়।

এসময় তিনি বলেন, মহিপুর থানা এলাকায় এসব নোংরামি চলতে দেওয়া যাবে না। যারা মহিলাদের দিয়ে এসকল কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

মহিবুল্লাহ/বার্তাবাজার/এম আই

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর