সাতক্ষীরার শাহিনুর রহমানের ২০ বিঘার ড্রাগন বাগানে ব্যাপক সম্ভাবনা

দেশের প্রযুক্তি সঠিক ব্যবহার করতে পারলে বেকারত্ব হ্রাসের পাশাপাশি কৃষিতে অর্থনৈতিক বিল্পব ঘটানো সম্ভব౹ ২০ বিঘা জমিতে ড্রাগন চাষ করে তরুনদের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে সে কথার যথার্থতা প্রমান করে এমন কথা বলেছেন সাতক্ষীরা কলারোয়ার তরুলিয়া এলাকার তরুন সফল উদ্যেগতা প্রকৗশলী শাহিনুর রহমান౹

শাহিনুর রহমান জানান, তিনি উপজেলার ১২ নম্বর যুগীখালী ইউনিয়নের তরুলিয়া গ্রামের সরসকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত ইংরেজি শিক্ষক শওকাত আলীর ছেলে౹ বর্তমানে তিনি ঢাকাতে মিডিয়াসওয়ার লিমিটেড সফটওয়্যার কোম্পানির ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে কর্মরত আছেন৷

কৃষিতে তার আগ্রহ থাকলেও পরিবারের অমত ও বাধা উপেক্ষা করে গ্রামের মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে গত ২০২০ সালে মানুষ যখন করোনায় ঘরবন্দি তখন ইউটিউব দেখে প্রথমে ১০ বিঘা ও পরে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরামর্শে সম্ভাবনা দেখে আরও ১০ বিঘা বিলের জমিতে মাটি ভরাট করে বানিজ্যিক ভাবে প্রায় ২ কোটি টাকা খরচ করে অত্যাধুনিক পাইপ লাইনে সেচ প্রকল্প ও নিরাপত্তায় সফটওয়্যার নিয়ন্ত্রিত সিসি ক্যামেরা মজবুদ ঘেরাবেড়া দিয়ে ড্রাগন চাষ শুরু করেন౹

এক বছরের ব্যবধানে সাতক্ষীরা জেলার মধ্যে সর্ববৃহৎ সম্ভাবনার এ ড্রাগন বাগানে গত বছর ২০২১ সালের মে থেকে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ৮ মাস ফল ভাঙ্গা হয় ౹ চলতি মৌসূমেও ক্ষেত থেকে গাছপাকা নিরাপদ ফল সাতক্ষীরা খুলনা ঢাকার ক্রেতারা পাইকারি ও খুচরা ক্রয় করছেন গত দুই বছরে প্রাই ১৯ লক্ষ টাকার ফল বিক্রি হয়েছে౹

এছাড়াও ”ফলের আড়ৎ” নমের অনলাইন ফেসবুক পেজের মাধ্যমে রপ্তানি করেন౹ ২০০ টাকা কেজি দরে ন্যয্য মূল্য পেয়ে খুশি౹ তার বাগানে এখন সার্বক্ষণিক ১০ থেকে ১৫ জন বেকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে ౹

শাহিনুর রহমানের বাবা শিক্ষক শওকাত আলী জানান , ছেলে বুয়েট থেকে ২০১৩ সালে সিএসই বিভাগে লেখাপড়া শেষ করেছে৷ এখন সে সফল ব্যবসায়ী ౹ সরকারি চাকুরির আশায় না ঘুরে লেখাপড়ার পাশাপাশি মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান গড়তে দীর্ঘদিন পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে౹

ঢাকাতে তার মিডিয়াসওয়ার লিমিটেড সফটওয়্যার কোম্পানিতে ৩২ জনের কর্মসংস্থান হয়েছে౹ কৃষি জমি গুলো এক সময় পতিত থাকলেও গ্রামের মানুষের জন্য় ২০ বিঘা জমিতে ড্রাগন চাষ করেছে এখন তার বিশাল স্বপ্নের এ খামারেও ১৫ জনের মত মানুষ কাজ করে ౹ সে যাতে এলাকার জন্য আরও ভালো কিছু করতে পারে এজন্য সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন৷

কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও রুলী বিশ্বাস জানান , মানুষের একটা সঠিক স্বপ্ন ও সিদ্ধান্ত গোটা সমাজে উন্নয়ন ঘটিয়ে অর্থনৈতিক চিত্র পাল্টে দিতে পারে তরুন উদ্যেগতা শাহিনুর রহমান যার দৃষ্টন্ত ౹ তরুলিয়া গ্রামে তার ২০ বিঘার বৃহৎ ড্রাগন বাগান নতুন এক সম্ভাবনা ౹

উপজেলার সকল সরকারি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা কয়েকবার তার নান্দনিক পরিচ্ছন্ন ড্রাগন বাগানে ভ্রমন করেছে ౹ উদ্যেগতা হিসাবে তিনি সকলের কাছে প্রসংশিত তার এ ড্রাগন বাগানে গ্রামের বেকার মানুষ কর্মসংস্থান পেয়ে সাবলম্বি হচ্ছে ౹ মানুষ বেকার না থেকে শাহিনুর রহমানের মতো উদ্যেগতা তৈরি হলে অর্থনৈতিক বিপ্লব হতো౹

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলায় ১২ জন চাষি ৩০ বিঘা জমিতে ড্রাগন চাষ করেছে জেলাসহ দেশে এ ফলের ভালো চাহিদা থাকায় ন্যয্য মূল্য পেয়ে চাষিরা লাভবান হচ্ছে౹

শাহিনুর রহমানের সর্ববৃহৎ ড্রাগন চাষ দেখতে ইতিমধ্যে মেহেরপুর খামারবাড়ির উপপরিচালক মোঃ শামসুল আলমসহ একটি টিম পরিদর্শন করেছেন ౹ তার বাগান থেকে প্রতি মাসে ১৫০০ কেজি ফল উৎপাদন হচ্ছে ౹

সম্ভাবনার এ ড্রাগন চাষে প্রথমে বেশি খরচ হলেও পরবর্তিতে পরিচর্যা ছাড়া আর কোন বাড়তি খরচ না থাকায় কৃষকরা বেশ আগ্রহ প্রকাশ করছে౹এ চাষ উপজেলায় আরও সম্প্রসারণ করতে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা ও পরামর্শ দিয়ে কৃষি অফিস কাজ করছে ౹

বার্তাবাজার/এম.এম

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর