২০ বছর ধরে ছদ্মবেশে ফাঁসির আসামি!

গত ২০ বছর ধরে ছদ্মবেশে পলাতক থাকা চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর ব্যবসায়ী ‘জানে আলম’ হত্যা মামলার ফাঁসির আসামি সৈয়দ আহমেদকে আটক করেছে র‍্যাব।

তিনি কখনো উদ্বাস্তু, কখনো বাবুর্চি, কখনোবা নিরাপত্তাকর্মীর ছদ্মবেশে ঘুরে বেড়িয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রামের আকবর শাহ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল আবসার বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন ।

এর আগে ২০০২ সালের ৩০ মার্চ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ব্যবসায়ী জানে আলমকে তার এক বছরের শিশুর সামনে হত্যা করে সৈয়দ বাহিনী ও তার সন্ত্রাসীরা।

ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করা সেই মামলায় আদালত ১২ জনকে ফাঁসি এবং ৮ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। পরবর্তীকালে আসামিরা সুপ্রিম কোর্টে আপীল করলে সুপ্রীম কোর্ট সৈয়দ আহম্মেদসহ মোট ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন।

চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল আবসার জানান, এ হত্যাকাণ্ডের পর ২০ বছর আসামি সৈয়দ আহম্মেদ বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে ছিলেন। চট্টগ্রামের বাঁশখালী বিভিন্ন ডাকাত দলের সাথে সমুদ্র পাড়ি দেয়। পরিবারের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। কিছুদিন উপকূলীয় এলাকায় এবং পরে সীতাকুণ্ডে অবস্থান করেন।

এবং বিভিন্ন মাজার এলাকায় বাবুর্চির কাজ করেন। এছাড়াও আকবরশাহ থানায় একটি বাড়িতে দারোয়ানের ছদ্মবেশে কাজ করেন। পরিচয় গোপন রাখতে দুটি ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্রও তৈরি করিয়ে নেন তিনি।

গোপনে খবরের ভিত্তিতে ২০ বছর ধরে পালিয়ে ও দারোয়ান সেজে পলাতক মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত সাজাপ্রাপ্ত আসামি সৈয়দ আহমেদকে চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‍্যাবের একটি দল।

মুহাম্মাদ হুমায়ুন/বার্তাবাজার/জে আই

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর