বড়াইগ্রামে পুলিশের ওপর হামলা, বিএনপির ৩৭ নেতাকর্মী বিরুদ্ধে মামলা

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার ৬নং গোপালপুর ইউনিয়নের রাজাপুরে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ৩৭ জন বিএনপির নেতাকর্মীকে নামীয় আসামী এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে বিএনপি নেতা সামসুল আলম রনি(৩৫) কে প্রধান আসামিসহ মোট ৩৭জনের নাম উল্লেখ্য এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১৫০জনকে আসামী করে নাটোরের বড়াইগ্রাম থানার এসআই সত্যব্রত সরকার বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

এজাহার সূত্রে জানাযায়, সোমবার রাতে বড়াইগ্রাম থানার এসআই সত্যব্রত সরকারসহ সঙ্গীয় অফিসার ফোর্স উপজেলার কয়েন বাজার এলাকায় বিশেষ অভিযানের ডিউটিতে থাকাকালীন সময়ে মামলার বাদী এসআই সত্যব্রত সরকার গোপন সুত্রে জানতে পারে উপজেলার রাজাপুর বাজারে বিএনপির নেতৃবৃন্দ রাজনৈতিক মিছিল শেষে আলমের হোটেলের সামনে নাটোর-পাবনা মহাসড়ক অবরোধ করে পথসভা করছে। ঘটনা শুনে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিবাদীদের মহাসড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন করে পথসভা করতে নিষেধ করেন। মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বিএনপি নেতাকর্মীদের রাস্তা ছেড়ে দিতে বলেন পুলিশ। এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের নিষেধ অমান্য করে পথসভা করতে থাকে। পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে এজাহারে উল্লেখিত ১নং আসামী বিএনপি নেতা সামসুল আমল রনির নির্দেশে সে সহ আব্দুল হালিম(২৯), আরিফুল ইসলাম খান কানন(২৭), শামীম খান(৪২), আজমল হোসেন(৪০) ও শাহীন(৪৩) এই ছয়জন পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে থাকে এবং এজাহারে উল্লেখিত ৩৭ জনের মধ্যে বাকী ৩১জন নামীয় আসামীসহ অজ্ঞাতনামা আরও ১৫০ জন বিএনপির নেতৃবৃন্দ সরকারী কাজে বাধা প্রদান করে পুলিশের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এতে এসআই সত্যব্রত সরকার সহ উপস্থিত সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যরা মারাত্মক ভাবে আহত হয়। এরপর থানা থেকে দ্রুত সময়ের মধ্যে এসআই আনোয়ারসহ আরও সঙ্গীয় অফিসার ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌছালে আসামীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়। পরে এসআই আনোয়ার হোসেন আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম মৃধা জানান, পুলিশের উপর হামলা ও জানমালের ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগে সংশ্লিষ্ট ধারায় ৩৭ জনের বিরুদ্ধে এবং ১৫০ জনকে অজ্ঞাত নামা উল্লেখ্য করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সাকলাইন শুভ/বার্তা বাজার/মনির

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর