বিয়ে করতে চাওয়ায় প্রেমিকাকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো প্রেমিক

পাবনার চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বৃগুয়াখড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। তিন বছর প্রেম করার পর প্রেমিকা বিয়ের দাবি করায় তাকে বেধড়ক পিটিয়েছে প্রেমিক। অভিযুক্ত প্রেমিক আর প্রেমিকা একই গ্রামের বাসিন্দা এবং চাটমোহর আরসিএন অ্যান্ড বিএসএন উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী (১৮)। ওই স্কুলছাত্রী এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

চাটমোহর থানায় দায়ের করা ছাত্রীর মায়ের লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, প্রেমিক রেজাউল ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যায়। পরে গত বছরের ১৪ জুলাই রেজাউল কৌশলে তার প্রেমিকার গর্ভপাত ঘটায়। এরপরও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যায় অভিযুক্ত রেজাউল।

প্রেমিক রেজাউল বার বার আশ্বাস দিয়েও বিয়ে না করায় ওই স্কুলছাত্রী গত রোববার (১৬ জানুয়ারি) রেজাউলের বাড়িতে অনশন শুরু করে। এ সময় রেজাউল, তার বাবা-মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা মিলে তাকে বেধড়ক মারপিট করে। খবর পেয়ে স্কুলছাত্রীর পরিবারের লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

স্কুলছাত্রীর মা বলেন, “রেজাউল তার মেয়ের জীবন নষ্ট করে দিয়েছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান ও বিচার দাবি করেন”

চিকিৎসাধীন স্কুলছাত্রী জানায়, “রেজাউল তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে প্রতারণা করেছে। রেজাউল বিয়ে না করলে তার আত্মহত্যা করা ছাড়া পথ থাকবে না”

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রেজাউলের মোবাইল ফোনে মঙ্গলবার রাতে ও বুধবার সকালে (১৯ জানুয়ারি) কল দিলে তার নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, “স্কুলছাত্রীর ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ৫ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে। ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে”

বার্তাবাজার/এম.এম

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর