রাজধানীতে কিশোর গ্যাং’র ৬ সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং ‘‘কিং অব মোচর’’ ও “ভাইব্বা ল কিং”র ৬ সদস্যকেগ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৩)।

আটককৃতরা হচ্ছে- মোঃ হৃদয় (২০), মোঃ রাসেল(২০), মোঃ শাওন(২২), মোঃ তাওহীদ(২০), মোঃ রাসেদ (২০), ও মোঃখাইরুল ইসলাম (১৯)।

আজ র‌্যাব -৩ এর সহকারী পুলিশ সুপার স্টাফ অফিসার (অপস্ ও ইন্ট শাখা) ফারজানা হক সাংবাদিকদের বিষয়টিনিশ্চিত করেছেন।আজ দুপুরে মোহাম্মদপুর থানার চাঁদ উদ্যান এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান চালিয়ে ‘‘কিং অব মোচর’’ ও “ভাইব্বা ল কিং” কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৬ সদস্যকে আটক করা হয়।

র‌্যাব -৩ এর সহকারী পুলিশ সুপার ফারজানা হক সাংবাদিকদের জানান, গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ এর একটি দল জানতে পারে, রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় কতিপয় কিশোর গ্যাং চক্রের সদস্যরা দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ক্রয়-বিক্রয় ওসেবন, এলাকায় চাঁদাবাজি, ছিনতাই, সাধারণ মানুষকে হয়রানি এবং বিভিন্ন রকম সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিল। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ এর একটি দল আজ দুপুর সোয়া ১ টার দিকে মোহাম্মদপুর থানার চাঁদ উদ্যান এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান চালিয়ে ‘‘কিং অব মোচর’’ ও “ভাইব্বা ল কিং” কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৬ সদস্যকে আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত ছিনতাইকারীরা র‌্যাবের কাছে স্বীকার করে জানায়, গত রোববার ‘‘কিং অব মোচর’’ কিশোর গ্যাং’র দুই সদস্যের জন্মদিন ছিল। এ জন্মদিন পালন করার জন্য তারা চাঁদ উদ্যান এলাকায় কনসার্ট এর আয়োজন করতে চেয়েছিল। পরে এ অনুষ্টানকে কেন্দ্র করে সিনিয়র জুনিয়র দ্বনধ ‘‘কিং অব মোচর’’ কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা “ভাইব্বা ল কিং” কিশোর গ্যাং এর সদস্যদের উপর হামলা করে।এতে উভয় গ্রুপের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে পথচারীদের উপর এলোপাথাড়ি আক্রমণ করে।

র‌্যাব -৩ এর এ কর্মকর্তা আরো জানান, উভয় গ্যাং গ্রুপের সদস্যরা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য দলবদ্ধ ভাবে মোটরসাইকেলের মহড়া দিয়ে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। এছাড়াও তারা মোটরসাইকেল ব্যবহার করে রিক্সা, ভ্যান, সিএনজি ও বাস যাত্রীদেরকে টার্গেট করে যাত্রীদের ব্যাগ/পার্টস ছিনতাই করে থাকে। তারা লালতলা তিন রাস্তার মোড়ে দলবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে মাদক সেবন করে উশৃঙ্খল আচরণ করে সাধারণ মানুষকে হয়রানি করে থাকে। তাদের অপরাধমূলক ও উশৃঙ্খল আচরণে এলাকাবাসী অতিষ্ট। এছাড়াও ধৃত ব্যক্তিরা মোহাম্মদপুর বেরিবাধ এলাকায় সংঘবদ্ধ হয়ে অপরাধ বিভিন্ন ধরনের কর্মকান্ড চালাতো বলে স্বীকার করেছে।

ফারজানা হক জানান, এ দু’টি কিশোর গ্যাং গ্রুপে ২৫/৩০ জন সদস্য রয়েছে যারা সংঘবদ্ধ ভাবে অপরাধমূলক কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল। এছাড়া গত ২২ নভেম্বর ২০২১ তারিখে র‌্যাব সদস্যরা “ভাইব্বা ল কিং” কিশোর গ্যাংয়ের ৯ জন সদস্যকে গ্রেফতারকরে। কিন্তু তারা জামিনে বের হয়ে পুনরায় একই অপরাধে জড়িত হয়েছে। ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর এলাকায়একাধিক মামলা রয়েছে। এবিষয়ে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

তানজীন মাহমুদ (তনু)/বার্তা বাজার/মনির

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর