২০, এপ্রিল, ২০১৮, শুক্রবার | | ৪ শা'বান ১৪৩৯

ধর্ষণের হুমকি, দুই শিক্ষিকাকে শারীরীক সম্পর্কের প্রস্তাব দুই ছাত্রের

আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:২৫ পিএম

ধর্ষণের হুমকি, দুই শিক্ষিকাকে শারীরীক সম্পর্কের প্রস্তাব দুই ছাত্রের
ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্কে পারস্পরিক সম্মান এবং বিশ্বাসযোগ্যতা— দু’টোই যে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে, সাম্প্রতিক কয়েকটি ঘটনায় তার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।   কিছুদিন আগেই হরিয়ানার একটি স্কুলে প্রধান শিক্ষিকাকে গুলি করে হত্যা করেছিল এক ছাত্র।   এবারে একই স্কুলের দুই ছাত্র দু’জন শিক্ষিকাকে যথাক্রমে ধর্ষণের হুমকি এবং শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দিল!

একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, গুরুগ্রামের একটি নামী স্কুলে গত সপ্তাহে এই ঘটনা দু’টি ঘটেছে।  
শিক্ষিকাদের সম্মান এবং অভিযুক্তরা নাবালক হওয়ায় তাঁদের এবং স্কুলের নাম প্রকাশ্যে আনা হচ্ছে না।  
যে দুই ছাত্র এই কাণ্ড ঘটিয়েছে, তারা যথাক্রমে সপ্তম এবং অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।   এদের মধ্যে প্রথমজন অনলাইন পোস্টের মাধ্যমে স্কুলেরই এক শিক্ষিকা এবং তাঁর মেয়েকে ধর্ষণের হুমকি দেয়।   ওই শিক্ষিকার মেয়েটি অভিযুক্ত ছাত্রটিরই সহপাঠী।  

অন্যদিকে, ওই স্কুলেরই অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্র স্কুলের এক শিক্ষিকাকে ই-মেল করে ক্যান্ডেললাইট ডেট এবং শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয়।  

বিবৃতি দিয়ে এই ঘটনার কথা স্বীকারও করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।   তবে, ঘটনা দু’টির কথা জানার পরেই তদন্ত করে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।   অভিযুক্ত দুই ছাত্রকেই সাসপেন্ড করে কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।  

যে শিক্ষিকাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছিল, তিনি ইতিমধ্যে স্কুলে যোগ দিলেও তাঁর মেয়ে এখনও আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।  
বিষয়টি জানতে পেরে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটি স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে।   সংস্থার চেয়ারপার্সন শকুন্তলা ধুল জানিয়েছেন, স্কুল এবং শিশুদের নোটিস পাঠানো হবে।   তাদের ডেকে গোটা ঘটনা জানতে চাওয়া হবে।   স্কুল কর্তৃপক্ষ, শিক্ষক, পড়ুয়া— সবারই কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা হবে।