২২, ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৬ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

ভালোবাসা দিবসের আবেশ বইমেলাতেও

আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৮:৪১ পিএম

ভালোবাসা দিবসের আবেশ বইমেলাতেও
আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ।  আর এই ভালোবাসার দিনে জমে উঠেছে বইমেলা।  এই দিনে পুরো বিশ্বের মানুষ ভালোবাসা  প্রকাশের জন্য যখন ব্যস্ত তখন  আমাদের জন্য বোনাস হিসেবে আছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা।  এই দিনে একে অপরকে দেওয়া উপহারে যুক্ত হয় বই ।  বইয়ে লেগে থাকে ভালোবাসার ছোঁয়া কেননা ভালোবাসার সূত্রপাঠ যে এই বই  থেকেই। 

এ দিবসকে কেন্দ্র করে মেলার গেইট খোলার সাথে সাথেই ভিড় করতে থাকে সব বয়সী মানুষ।  প্রিয় মানুষটির সঙ্গে ভ্যালেন্টাইন ডে
পালন করে তারা হাজির হয়েছেন বইমেলায়।  স্টলে থাকা বই বিক্রেতারা  বলছেন উৎসবের কারণে আজ অন্য দিনের চাইতেও বেশি বই বিক্রি হচ্ছে মেলায়। 


তরুণ-তরুনীদের উচ্ছাসে মেলা প্রাঙ্গণ গমগম ভাব।  হাতে হাতে বই নিয়ে পাঠক পাঠিকার স্টল থেকে স্টলে ঘুরে দেখে কিনছেন পছন্দের বই। 


মেলায় আসা রোমানা-শফিক জুটি খুঁজছিলেন প্রেমের উপন্যাস ।  তাদের পছন্দের লেখক হুমায়ুন আহমেদ ও ইমদাদুল হক মিলন।  দুজনেরই বই কিনছেন তারা। 


মেলায় আগত  কলেজের শিক্ষার্থী মোমেনা  আক্তার বলেন,  আজকের দিনটি খুবই ভালো কাটছে।  আর এবারের ভালোবাসা দিবসে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে।  অন্য সময়ে ভালোবাসা দিবসে শুধু প্রেমিক প্রেমিকাকেই ঘুরতে দেখা যেত।  কিন্তু এবার দেখা যাচ্ছে বন্ধু তার বন্ধু-বান্ধবী, ভাই বোনের ভালোবাসা, বাবা মায়ের প্রতি সন্তানের ভালোবাসা। 


অনন্যা প্রকাশনির স্বত্বাধিকারী মনিরুল হক জানালেন ইমদাদুল হক মিলনের নতুন প্রেমের উপন্যাস ‘‘আছো তুমি হৃদয়জুড় ও একটি রহস্য উপন্যাস। 


দেশের স্বনামধন্য সাংবাদিক  ও লেখক আনিসুল হক জানালেন, ইটি, তুমি কেমন আছো আলো আাঁধারির যাত্রী নামে প্রথমা থেকে  আমার দুটি বই আসছে।  আর মেলায় এসে তো অনেক ভালো লাগে, পাঠকের সাথে দেখা হয়।  অনেক বই ও কেনা হয়।  আজকের দিনে আরও বেশি ভালো লাগছে। 


 ব্যস্ত নগরজীবনে উপভোগ করার মতো সাংস্কৃতিক উৎসব অনেকটাই কম।  তবুও এমন উৎসবে সবার মনে রং ছড়াক।  রংয়ের সেই ছড়াছড়িতে আটপৌরে নগরজীবন থেকে নেমে যাক হতাশা, গ্লানী, পাওয়া না পাওয়ার হিসেব। ভালোবাসার আবেশ ছগাক সবার মনে  এমন প্রত্যাশাই সবার।